রামগঞ্জে ত্রান সামগ্রী বিতরন কালে আওয়ামীলীগ নেতার উপর হামলা

স্টাপ রিপোর্টার:
বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সদস্য মো. কামরুজ্জামান শুভ’র ত্রাণসামগ্রী বিতরণকালে হামলা ও মোটর সাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। আজ ২১ এপ্রিল (বুধবার) বিকেলে উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের খলিফার দরজা নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, লকডাউনে কর্মহীন মানুষের মাঝে গত কয়েক দিন ধরে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে খাদ্যসামগ্রী বিতরন করে আসছেন আওয়ামীলীগ নেতা কামরুজ্জামান শুভ। খলিফার দরজা এলাকার মিঝি সুপার মার্কেটের একটি কক্ষে ত্রানের প্যাকেট করছিলো স্থানীয় ছাত্রলীগ, যুবলীগ নেতা-কর্মীরা। হঠাৎ করে
রুবেল,রাজু,রাসেল,রবিন নামে কথিত কিছু ছাত্রলীগ কর্মী ২০/২৫ জন দুষ্কৃতিকারীদের সাথে নিয়ে সেখানে উপস্থিত হয়ে খাদ্য সামগ্রী ফেলে দিয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য সুমনের উপর হামলা করে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

এলাকাবাসী আরো জানায়, স্থানীয় এমপি ড. আনোয়ার খানের সাথে আওয়ামীলীগ নেতা কামরুজ্জামান শুভর সাথে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি করতে এবং তাদের মানহানি করার লক্ষ্যেই পরিকল্পিতভাবে এ হামলা করা হয়েছে। হামলাকারীরা যাওয়ার সময় রামগঞ্জ সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইসমাইল শেখের মোটরসাইকেল নিয়ে যায়। বিষয়টি নিশ্চিত করে ছাত্রলীগ নেতা ইসমাইল শেখ বলেন, আওয়ামীলীগ নেতা শুভ’র ত্রান সামগ্রী বিতরনে সহযোগিতা করায় আমার মোটরসাইকেলটি ছিনতাই করে নিয়ে যায় তারা।

ঢাকাস্থ বনানী থানা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক আরিফ উল্লাহ অলি বলেন, কামরুজ্জামান শুভ কর্মহীনদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী সহায়তা করছেন। এতে দোষের কিছু নেই। দলীয় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এমন ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশংকা করছেন তিনি।

ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য সুমন বলেন, শুভ ভাইয়ের ত্রানসামগ্রী বিতরনে প্রত্যক্ষ সহযোগিতা করায় তার উপরে হামলা করা হয়েছে। ছাত্রলীগের কয়েকজন কর্মীরা এমনটি করেছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। তবে হামলাকারীদের নাম প্রকাশ করতে চাননি সুমন।

এব্যাপারে জানতে চাইলে, আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক কেন্দ্রীয় উপকমিটির সদস্য কামরুজ্জামান শুভ বলেন, চলমান লকডাউনে কর্মহীন মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে গত কয়েক দিন ধরে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করছি। এতে ঈর্ষান্বিত হয়ে কতিপয় ছাত্রলীগ নামধারী কিছু ব্যক্তি ২০/২৫ জন দুষ্কৃতিকারীদের দিয়ে স্থানীয় এমপি মহোদয়ের নাম বিক্রি করে পরিকল্পিতভাবে হামলা চালায় এমপি মহোদয় ও আমার মধ্য দ্বন্ধ সৃষ্টি করার লক্ষ্যে। এসময় তারা ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য সুমনকে মারধর করে

মন্তব্য

মন্তব্য