রাজধানীতে মা-মেয়েসহ তিনজনকে কুপিয়ে জখম

রাজধানী যাত্রাবাড়ী এলাকার শনির আখড়ায় বাসার ভেতর ঢুকে মা-মেয়েসহ তিনজনকে কুপিয়ে জখমের ঘটনা ঘটেছে। রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে শেখদী এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। পরে তিনজনকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

পুলিশ জানায়, আহতরা হলেন—ইয়াছমিন আক্তার (৩৫), মাহমুদা মেহেরিন (১৫) ও রুহুল কুদ্দুস বাবু (৪৫)। গৃহিণী ইয়াছমিনের মেয়ে মাহমুদা ব্রাইট স্কুল অ্যান্ড কলেজে নবম শ্রেণিতে পড়ে। প্রতিবেশী বাবু হামলায় বাধা দিলে তাঁকেও চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করা হয়।

আহত ইয়াছমিন জানান, পরান নামে একজন পূর্বশত্রুতার জের ধরে সন্ধ্যায় বাসায় ঢুকে হামলা করেছে। শুরুতে বাসায় ঢুকে দরজা বন্ধ করতে গেলে মেহেরিন বাধা দেন। এ সময় তাঁর ডান হাতে কোপ দিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে তাঁর চিৎকারে মা ইয়াছমিন এগিয়ে গেলে তাঁর মাথায়ও কোপ দেয়। বাসায় ঢুকার আগে বাবুকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে রাখে পরান।

পুলিশ জানায়, আহত ইয়াছমিনের গ্রামের বাড়ি নোয়াখালী চৌমহনী থানার দরবেশপুরে। তাঁর স্বামীর নাম মাসুদ কিবরিয়া। তাঁদের দুই ছেলে ও এক মেয়ে। দুই নম্বর রোড শনিরআখড়া শেখদীতে ছয়তলা ভবনের পাঁচতলায় থাকেন।

এ বিষয়ে যাত্রাবাড়ী থানার ইন্সপেক্টর তদন্ত শাহীনুর রহমান বলেন, ‘তিনজনেরই চিকিৎসা চলছে। একজনের অবস্থা কিছুটা আশঙ্কাজনক। এই ঘটনায় এখনো কোনো মামলা হয়নি। হামলার ঘটনায় রহস্য রয়েছে।’

মন্তব্য

মন্তব্য