পলাশবাড়ীতে অপহৃত ব্যবসায়ী উদ্ধার, তিন অপহরণকারী আটক

রওশন হাবিব, গাইবান্ধা প্রতিনিধি: গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে সজিব মিয়া (২২) নামে অপহৃত এক
ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় অপহরণের সাথে জড়িত তিন যুবককে আটক করা হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।
বুধবার (২৯ জানুয়ারী) বিকেলে অপহৃত সজিবের মামা আশরাফুল ইসলাম মিলন বাদী
হয়ে পলাশবাড়ী থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেন।

এর আগে বুধবার (২৯ জানুয়ারী) ভোরে পলাশবাড়ী উপজেলা সদরের গৃধারীপুর
মতিয়ার ডাক্তারের বাসা থেকে অপহৃতকে উদ্ধারসহ তিনজনকে আটক করা হয়।

আটকরা হলো, উপজেলা সদরের গৃধারীপুর গ্রামের মতিয়ার ডাক্তারের ছেলে
মুশফিকুর রহমান সজল (২৬), পশ্চিম গোয়ালপাড়া গ্রামের জাহিদুল হকের ছেলে
হারুন অর রশিদ সৌরভ (২৬) ও উদয়সাগর গ্রামের শামসুজ্জামান সরকারের ছেলে
রুবেল সরকার (২৫)।

অপহৃত ব্যবসায়ী সজিব মিয়া জেলার সাদুল্যাপুর উপজেলার চকনদী গ্রামের
শহিদুল ইসলামের ছেলে। সে পলাশবাড়ী সদরের কালিবাড়ী বাজারে মহিলা মার্কেটে
তার মামা আশরাফুল ইসলামের একটি কনফেনশনারী দোকান পরিচালনা করেন।

পলাশবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) মতিউর রহমানকে জানান, মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারী) রাত সাড়ে ৯ টার দিকে পলাশবাড়ী
সদরের জামালপুর গ্রামের তিনমাথা মোড় (গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী সড়ক) থেকে সজিব
মিয়াকে মোটরসাইকেলে তুলে অপহরণ করে সজল ও সৌরভ। এসময় তাদের সহায়তা করে
রুবেল।

পরে সজিবকে সদরের গৃধারীপুর গ্রামে সজলের বাসার তিনতলায় আটক রেখে
নির্যাতনসহ তার মামা আশরাফুল ইসলামের কাছে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবী
করে অপহরণকারীরা। পরে মামা আশরাফুল ইসলাম ৫ হাজার টাকা অপহরণকারীদের
বিকাশ একাউন্টে পাঠিয়ে দেয়। তারা বাকী টাকার জন্য চাপ প্রয়োগ করলে তিনি
থানা পুলিশের সহায়তা কামনা করেন।

এরপর ওই বিকাশ নাম্বারের সূত্র ধরে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় অপহরণকারীদের
অবস্থান নিশ্চিত হয়ে বুধবার (২৯ জানুয়ারী) ভোর ৫ টার দিকে অপহৃতকে
উদ্ধারসহ তিন অপহরণকারীকে আটক করা হয়।

মন্তব্য

মন্তব্য