শ্রীপুরে বালতির পানিতে শিশুর মৃত্যু

সাইফুল আলম সুমন,নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ
গাজীপুরের শ্রীপুরে বালতির পানিতে পড়ে শিশু দিয়া রাণী মন্ডল (১১মাস) মারা গেছে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার রাজাবাড়ী ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামে শিশুর নানা বাড়িতে বালতির পানিতে পড়ে তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে শ্রীপুর থানা পুলিশ রাত ৯টায় শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজীব কুমার সাহা লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, শিশুর বাবা স্বর্গীয় বিপ্লব চন্দ্র মন্ডল একজন অটো চালক। তার বাড়ী পাশের কালীগঞ্জ উপজেলার ধনপুর গ্রামে। গত জুলাই মাসের কোন এক সময় সে অটো নিয়ে বাসা থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। নিখোঁজের পাঁচ দিন পর বাড়ি থেকে তিন কিলো মিটার দূরে তার অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। দুর্বৃত্তরা তাকে হত্যা করে অটো নিয়ে যায় এবং লাশ বাড়ির পাশে ফেলে রাখে। এ ঘটনার পর থেকে বৃষ্টি রাণী শিশু দিয়া রাণী মন্ডলকে নিয়ে বাবার বাড়ি শ্রীপুর উপজেলার রাজাবাড়ী ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামে চলে আসে। এরপর থেকে সে বাবার বাড়ি থেকেই শিশুকে লালন-পালন করে আসছে।

স্বজনদের বরাত দিয়ে শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজীব কুমার সাহা জানান, দুপুরে শিশুটিকে খালা শ্রাবন্তি রাণী মন্ডলের (৬) কাছে রেখে মা ঘুমিয়ে পড়ে। খালা শিুটিকে রেখে সহপাঠিদের সাথে খেলতে যায়। খেলা থেকে এসে দেখে শিশুটি পাশে থাকা বালতির পানিতে পড়ে আছে। পরে সে তার বোন শিশুর মা বৃষ্টি রাণীর মন্ডলকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে। পরে মা শিশুকে বালতির পানি থেকে তুলে পাশের বাড়িতে গিয়ে পেটে চাপ দিয় পানি বের করার চষ্টা করেন। পানি বের করতে না পেরে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক শিশুকে মৃত ঘোষনা করে। ময়না তদন্তের পর হত্যার প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। এ ঘটনায় শ্রীপুর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মন্তব্য

মন্তব্য