গলাচিপায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণ আটক ১!

মু.জিল্লুর রহমান জুয়েল, গলাচিপা,পটুয়াখালী //

গলাচিপায় মিথ্যা বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গৃহবধূকে দুই দিন ধরে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গলাচিপা উপজেলার ডাকুয়া ইউনিয়নের পূর্ব আটখালী গ্রামের মৃত আলী আকবরের ছেলে রাজিব (২৫)কে প্রধান আসামী করে দুই জনের বিরুদ্ধে গলাচিপা থানায় শুক্রবার একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত রাজিবকে গ্রেফতার করে কোর্টে প্রেরণ করেছে পুলিশ।ঘটনার শিকার গৃহবধূকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। পুলিশ ও মামলার বিবরণে জানাগেছে, গত ২৮ অক্টোবর সোমবার ঘটনার শিকার গৃহবধূকে গলাচিপা উপজেলার ডাকুয়া ইউনিয়নের পূর্ব আটখালী গ্রামের মৃত আলী আকবরের ছেলে রাজিব বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নিজের বাড়িতে নিয়ে আসে।রাজিবের স্ত্রী বাপের বাড়ি থাকার সুযোগে গৃহবধূকে নিয়ে এসে দুই দিন ধরে আটকে রেখে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়। ধর্ষণের আগে গৃহবধূকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গ্রামের বাড়ি কলাপাড়া উপজেলার মহিপুর থানার ধুলেশ্বর গ্রাম থেকে গলাচিপার ডাকুয়ার পূর্ব আটখালী গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসে । পরে গৃহবধূকে ২৯ অক্টোবর মঙ্গলবার রাজিবের বাড়ি থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ উদ্ধার করলে গৃহবধূর পরিবারের লোকজন তাদের গ্রামের বাড়ি মহিপুর থানার ধুলেশ্বর গ্রামে নিয়ে যায়। সেখানে গৃহবধূ অসুস্থ হয়ে পড়লে কলাপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে ভর্তি করা হলেও তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে পটুয়াখালী হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে শুক্রবার সকালে গৃহবধূ বাদী হয়ে গলাচিপা থানায় রাজিবকে প্রধান আসামী করে দুই জনের বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। এ প্রসঙ্গে গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ আখতার মোর্শেদ বলেন, ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। ধর্ষণের প্রধান আসামী রাজিবকে গ্রেফতার করে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে। অন্য আসামীকে ধরার অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে তিনি জানান।

মন্তব্য

মন্তব্য