ঢাকা রেঞ্জের ক্রাইম কনফারেন্সে উত্তম কাজের জন্য ২৭ পুলিশ সদস্য পুরস্কৃত

ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনারেল (ডিআইজি), ঢাকা রেঞ্জ জনাব হাবিবুর রহমান, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) এর সভাপতিত্বে অদ্য ২৪/১০/২০১৯ খ্রিঃ তারিখ সকাল ১০.৩০ ঘটিকায় ঢাকা রেঞ্জ, সম্মেলন কক্ষে সেপ্টেম্বর/১৯ মাসের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ডিআইজি মহোদয় এর স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু হয়। সভায় মাসিক কর্মদক্ষতার ভিত্তিতে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ২৭ জন অফিসার/ফোর্সসহ ০৩ জন চৌকিদারকে পুরস্কৃত করা হয়। সেপ্টেম্বর/১৯ মাসে টাঙ্গাইল জেলার পুলিশ সুপার জনাব সঞ্জিত কুমার রায়, বিপিএম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ পুলিশ সুপার এবং টাঙ্গাইল জেলার (মধুপুর) সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জনাব মোঃ কামরান হোসেনকে রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ সার্কেল অফিসার হিসেবে পুরস্কার দেয়া হয়।
অক্টোবর/১৯ মাসের মাসিক অপরাধ পরিসংখ্যান নিয়ে বিস্তারিত আলোচনাসহ বিভিন্ন মামলা সংক্রান্তে দিক নির্দেশনা প্রদান করা হয়। পর্যালোচনায় দেখা যায়, সেপ্টেম্বর/১৯ মাসে ঢাকা রেঞ্জে ৩০৩৬টি মামলা রুজু হয়েছে, যা আগস্ট/১৯ মাসের তুলনায় ৫৭টি মামলা বৃদ্ধি পেয়েছে ও সেপ্টেম্বর/১৮ মাসের তুলনায় ৩৮৩টি মামলা হ্রাস পেয়েছে। সেপ্টেম্বর/১৯ মাসে মাদকদ্রব্য উদ্ধার খাতে ১৫০০টি মামলা রুজু হয়েছে, যা আগস্ট/১৯ মাসের তুলনায় ৪০টি বৃদ্ধি পেয়েছে ও সেপ্টেম্বর/১৮ মাসের তুলনায় ৪৬৮টি মামলা হ্রাস পেয়েছে। তাছাড়া, অস্ত্র উদ্ধার খাতে আলোচ্য মাসে ১৮টি মামলা রুজু হয়েছে, যা আগস্ট/১৯ মাসের তুলনায় ০৩টি মামলা হ্রাস ও আগস্ট/১৮ মাসের তুলনায় ২৬টি মামলা হ্রাস পেয়েছে। সেপ্টেম্বর/১৯ মাসে বিজ্ঞ আদালত হতে ১০৯৮৬টি গ্রেফতারী পরোয়ানা প্রাপ্ত হয়ে ২০৭০৯টি গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল অর্থ্যাৎ ৯৮২৩টি গ্রেফতারী পরোয়ানা নিষ্পত্তি বের্শি হয়েছে।

ডিআইজি, ঢাকা রেঞ্জ মহোদয় নতুন সড়ক পরিবহন আইন বাস্তবায়নে প্রস্তুতি নিতে এবং পুলিশকে আরও জনমূখী করতে সকল কর্মকর্তাদেরকে সক্রিয় হতে নির্দেশনা প্রদান করেন।
তিনি গ্রেফতারী পরোয়ানা নিষ্পত্তি বৃদ্ধি পাওয়ায় সংশ্লিষ্ট জেলার পুলিশ সুপারদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। বর্তমানে বিরাজমান স্বাভাবিক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি বজায় রাখতে নিষ্ঠা, সততা ও পেশাদারিত্বের সাথে দায়িত্ব পালনের জন্য রেঞ্জের সকল পুলিশ সদস্যদের প্রতি আহবান জানান।

সভাপতি মহোদয়ের সম্মতিক্রমে অতিরিক্ত ডিআইজি (অপরাধ) জনাব মোঃ আসাদুজ্জামান, বিপিএম (বার) ঢাকা রেঞ্জ সভার কার্যক্রম পরিচালনা করেন এবং রেঞ্জাধীন ১২টি জেলার পুলিশ সুপারসহ ঢাকা রেঞ্জ অফিসের অতিরিক্ত ডিআইজি (অপস এন্ড ইন্টেলিজেন্স) ও পুলিশ সুপারগণ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য

মন্তব্য