সন্দ্বীপ বাউরিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ  কর্তৃক সহকারী হাফেজ শিক্ষককে বলাৎকারের চেষ্টা

মো: নুরুল আবছার, সন্দ্বীপ : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ইং রোজ শুক্রবার সন্ধ্যা অনুমান ৭ঘটিকায় বাউরিয়া মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আবদুর রহিম (৬০) কর্তৃক অত্র মাদ্রাসার সহকারী হাফেজ শিক্ষক হুমায়ুন রশীদ (২১)কে বলাৎকারের চেষ্টা করেন বলে জানা যায়, এ বিষয়ে হাফেজ হুমায়ুন রশীদ এর সাথে কথা বললে সে দিন প্রতিদিনকে জানান সন্ধ্যা সাতটায় অধ্যক্ষ অত্র মাদ্রাসার আবাসিক রুমে মোবাইল ঠিক করার জন্য হাফেজ হুমায়ুন রশীদ এর রুমে আসেন এবং  অধ্যক্ষের মোবাইল সমস্যা বলে হাফেজ হুমায়ূনকে দেখতে বলেন এক পর্যায়ে অধ্যক্ষ তার হাত ধরে তাকে বলৎকারের প্রস্তাব দেয় সে প্রস্তাবে রাজি না হলে তাকে জড়িয়ে ধরে বলাৎকারের চেষ্টা করেন এতে হাফেজ হুমায়ুন রশীদ চিৎকার শুরু করলে অধ্যক্ষ ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে ভয় দেখাই। এক পর্যায়ে সে ধস্তাধস্তি করে বাহির হয়ে পাশের বাজার (নোয়া হাট) চলে এসে কয়েকজন গন্যমান্য লোকদের বিষটি বললে সাথে সাথে এলাকাবাসী উক্ত মাদ্রাসা ঘেরাও করে এর বিচার দাবি করেন পরে এলাকার আলেম সমাজ তারা এর বিচার করবে বলে আসস্থ করলে এলাকা শান্ত হয়।

এলাকার আলেম সমাজ  ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ইং রোজ শনিবার  আসর নামাজের পর আলেম সমাজ ও এলাকার গণ্যমান্য লোক অত্র মাদ্রাসায় বসে এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয় যে অত্র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আবদুর রহিম (৬০)কে বরখাস্তসহ আজীবনের জন্য অত্র মাদ্রাসা থেকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়।

মন্তব্য

মন্তব্য