কলাপাড়ায় ১৩ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণ।

মোঃ শহীদুল ইসলাম,পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধি // পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলায় ১৩ বছরের এক কিশোরীকে হাত ও মুখ বেঁধে ধর্ষণ করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) আনুমানিক রাত ৮.০০ টার দিকে কলাপাড়া পৌরশহরের নাচনাপাড়া এলাকায়।
ধর্ষণ কারি কিশোরীর বাবা নাম জাহাঙ্গীর ফকির মায়ের নাম নাছিমা বেগম। কিশোরীর পিতা জাহাঙ্গীর ফকির কলাপাড়া থানায় একটি মামলা করেছেন।

ওই রাতেই অভিযুক্ত ধর্ষক বখাটে জুয়েল (২০) ও তার সহযোগী মাদক কারবারি মিঠু (২১) কে গ্রেফতার করেছেন পুলিশ।

শুক্রবার সকালে ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী প্রেরণ করা হয়েছে জানিয়েছে পুলিশ।

ভিকটিম সূত্রে জানা গেছে, সারা দিনের কাজ শেষে সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টারদিকে বাসায় ফিরে কিশোরীর বাবা জাহাঙ্গীর ফকির নদীতে মাছ ধরতে যায়। আর মা নাছিমা বেগম কিশোরী মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে বাড়ি থেকে একটু দূরের পুকুরে গোসল করতে যায়। এরই মধ্যে কিশোরী একা ঘরে ফিরছিল, পথিমধ্যে অভিযুক্ত জুয়েল ও মিঠু জাপটে ধরে কিশোরীর মুখ চেপে ধরে ওই কিশোরীকে একটি পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে হাত বেঁধে ও মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে।

ওই কিশোরী দুই বছর আগে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়া শেষে শিক্ষাজীবন থেকে ঝরে গেছে তার জিবনের আলো।

মন্তব্য

মন্তব্য