কুড়িগ্রামের উলিপুরে বিভিন্ন সড়কে জলাবদ্ধতা, দুর্ভোগে পথচারীরা

 

সাইফুর রহমান শামীম, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :: পানি নিস্কাশনে প্রয়োজণীয় ব্যবস্থা না থাকায় কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলা সদরে উলিপুর-রাজারহাট সড়কে মরিয়ম মাতৃমঙ্গলের সামনে বৃষ্টির পানিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।
পৌর কর্তৃপক্ষ পানি নিস্কাশনে জরুরী ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী, পথচারী ও যানবাহন চলাচলে মারাক্তক ভাবে বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছে, সেই সাথে মাতৃমঙ্গলে আসা প্রসুতি রোগীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে । জানা গেছে স¤প্রতি ৮ কোটি টাকা ব্যয়ে এ সড়কটির সংস্কার ও উন্নয়ন করা হলেও উপজেলা সদরের বিভিন্ন এলাকায় ঝড়বৃষ্টির পানি নিস্কাশনে কোন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়নি।
উপজেলা প্রকৌশলী অফিস সুত্রে জানা গেছে ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে উলিপুর-রাজারহাট সড়কটি সংস্কার ও উন্নয়নে ৭ কোটি ৭৭ লাখ টাকা বরাদ্ধে ইতিমধ্যেই কাজ সম্পন্ন করেন। এরপর স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ এ সড়কটি সড়ক ও জনপথ বিভাগের কাছে হস্তান্তর করেন।
সড়কটি সংস্কার ও উন্নয়ন করলেও উল্লেখিত স্থান সমূহে পানি নিস্কাশনে কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেননি, ফলে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া ড্রেনেজ ব্যবস্থার অভাবে পৌর শহরের মাছ বাজার, ঐতিহ্যবাহী মহারানী স্বর্ণময়ী স্কুল এন্ড কলেজ এলাকা, উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্র চত্বর, কোট চত্বর ও উপজেলা চত্বরসহ বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতায় মানুষের নাকাল অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে পৌর কর্তৃপক্ষ অপরিকল্পিতভাবে শহরে ড্রেন নির্মান করায় এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।
উপজেলা প্রকৌশলী নুরুল ইসলাম জানান, সড়ক নির্মান করা হলেও ডিজাইনে ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে।
পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত সচিব প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমানের সাথে কথা হলে তিনি জানান অর্থের স্বল্পতার কারনে নতুন করে ড্রেন নির্মান করা যাচ্ছে না। পূর্বে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সঠিকভাবে ড্রেন নির্মাণ না করায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তবে সড়কের উপর জমে থাকা পানি নিস্কাশনে জরুরী ব্যস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

মন্তব্য

মন্তব্য