চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে টয়লেট থেকে আপত্তিকর অবস্থায় প্রেমিক যুগল আটক

অনলাইন ডেস্ক:
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) দশ দিনের ব্যবধানে আপত্তিকর অবস্থায় আরও এক প্রেমিক যুগলকে আটক করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
আজ সোমবার (৪ মার্চ) দুপুরে কলা অনুষদের বাথরুম থেকে সহকারী প্রক্টর নিয়াজ মোরশেদের নেতৃত্বে তাদেরকে আটক করা হয়।
আটককৃত শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের ইমাম হাসান ও বাংলাদেশ স্টাডিজ বিভাগের মাহিন ফরিদ। তারা দু’জনই বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ সেশনের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। সূত্র জানায়, এর আগেও গত বুধবার তাদেরকে বাথরুম থেকে একসঙ্গে বের হতে দেখা যায়।
প্রত্যক্ষদর্শী কলা অনুষদ প্রহরীরা সাংবাদিকদের জানান, দুপুরে দুজনকে একসঙ্গে ফারসি বিভাগের বাথরুমে ঢুকতে দেখি। অনেক্ষণ তাদেরকে বের হতে না দেখে প্রক্টর অফিসে জানাই। পরবর্তীতে সহকারী প্রক্টর নিয়াজ মোর্শেদ রিপন তাদেরকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রক্টর অফিসে নিয়ে যান।
এ ব্যাপারে সহকারী প্রক্টর নিয়াজ মোর্শেদ রিপন বলেন, বাথরুম থেকে তাদের আটক করেছি আমরা। জিজ্ঞাসাবাদের পর সামাজিক দায়বদ্ধতার কথা চিন্তা করে তাদেরকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।
প্রসঙ্গত, এর আগে ২৫ ফেব্রুয়ারী রাতে সোহরাওয়ার্দী হলের গেস্টরুম থেকে বহিরাগত এক তরুণীকে তালাবদ্ধ অবস্থায় আটক কররে পুলিশে দেওয়া হয়েছিল। পরেরদিন আটককৃত তরুণীর অভিভাবকের উপস্থিতিতে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয় হাটহাজারী থানা পুলিশ।
এসব ঘটনায় বিরূপ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তারা এসকল ঘটনার জন্য কর্তৃপক্ষের উদাসীনতাকেই দায়ী করেন। তার বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের মত সর্বোচ্চ শিক্ষাঙ্গনে এধরণের ঘটনা অপ্রত্যাশিত। কর্তৃপক্ষের সার্বিক নজরদারির মাধ্যমে এসব অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা এড়ানো সম্ভব।

মন্তব্য

মন্তব্য