বোরহানউদ্দিনে শালার শ্বশুর বাড়ীর লোকজনের হামলায় পল্লী চিকিৎসক আহত

বোরহানউদ্দিন (ভোলা) প্রতিনিধিঃ
ভোলা বোরহানউদ্দিন উপজেলার খায়েরহাট বাজারের পল্লী চিকিৎসক আজিজুল হকের উপর হামলা করে গুরুত্বর আহত করেছে তার শালার শ্বশুর বাড়ীর লোকজন। এসময় হামলাকারীরা তার দোকানে হামলা করে দোকানে ক্ষয়ক্ষতির করারও অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনাটি খায়েরহাট বাজারে শনিবার বিকাল ৫টায় ঘটেছে।
আহত পল্লীচিকিৎসক আজিজুল হক অভিযোগ করে বলেন, আমার শালা আকতার হোসেন এর শ্বশুর বাড়ীর লোকজন সাথে তার নামে নীরি নির্যাতন মামলা নিয়ে ঝামেলা চলছে। এ মামলায় আমাকেও আসামী করা হয়। পরে বিজ্ঞ আদালত আমাকে নির্দোষ হিসাবে খালাস দেন। আমি এলাকার বাজারে পল্লীচিকিসা করে সংসার পরিচালনা করে আসছি। কিন্তু আমার শালার শ্বশুর গংগাপুর ১নং ওয়ার্ডের চৌকিদার ফরিদ চৌকিদার ক্ষমতার অপব্যবহার করে এলাকার প্রভাবশালী মহল দিয়ে আমাকে নানা ভাবে হুমকি দুমকি প্রদান করে এ ঘটনার ফয়সালার জন্য। গত ৬ মাস পূর্বে এ ঘটনায় এলাকার চেয়ারম্যান ও মেম্বারের মিমাংসে আমার শ্বশুর আলমগীর আমার শালা বউকে বাড়ীতে নিয়ে যায়। এর ১ মাস পরে আমার শালা আকতার কে পুলিশ ধরে নিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করলে ২ মাস পরে জামিনে মুক্তি পায়। এরপর থেকে আমার শালার শ্বশুর বাড়ীর লোকজন আমাকে ব্যাপক ভাবে চাপ প্রয়োগ করেন এ ঘটনার মিমাংস করার জন্য। এতে আমি রাজি না হওয়ায় শনিবার বিকালে আমার দোকানে এসে ফরিদ চৌকিদার, নিফা ও নিফার মা আয়েশা এসে আমার সাথে খারাপ আচরণ করে। বাকবিতন্ডের এক পর্যায়ে ফরিদ চৌকিদার এর নেতৃত্বে নিফা ও তার মা আয়েশা আমার উপর হামলা করে আহত করেন। এসময় তারা দোকানের ক্যাশ থেকে প্রায় ২০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায় এবং দোকানের ঔষাধ ভাংচুর করে প্রায় ৩০ হাজার টাকার ক্ষতিসাধন করে। আমাকে স্থানীয়রা আহত অবস্থায় উদ্ধার করে খায়েরহাট হাসপাতালে ভর্তি করেন। আমি চিকিৎসাধীন রয়েছি।
এব্যাপারে ফরিদ চৌকিদারের সাথে আলাপকালে তিনি ঘটনার সত্বত্য স্বীকার করে বলেন, আমার সাথে খারাপ আচরণ করায় এ ঘটনার সৃষ্টি হয়েছে।

মন্তব্য

মন্তব্য