জমি সংক্রান্ত বিরোধে কালীগঞ্জে দুই সন্তানের জননীকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ


কালীগঞ্জ(গাজীপুর) প্রতিনিধি //

গাজীপুরের কালীগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে দুই সন্তানের জননীকে এলোপাতাড়ি মারধর করে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা ও মাটি খুঁড়ে জ্যান্ত মাটি চাপা দিয়ে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল মঙ্গলবার সকালে উপজেলার তুমুলিয়া ইউনিয়নের মালিবন্দ এলাকায়। স্থানীয়রা মুমূর্ষু অবস্থায় ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রো ভর্তি করেন। এ সংক্রান্ত বিষয়ে গৃহবধূর স্বামী ইজিবাইক চালক মো. আমান গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে কালীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। দুই সন্তানের জননী নির্যাতিত হওয়ার অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবু বকর মিয়া। তিনি বলেন, এ সংক্রান্ত বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।

নির্যাতিত পরিবার ও অভিযোগে জানা যায়, কালীগঞ্জ উপজেলার তুমলিয়া ইউনিয়নের মালিবন্দ এলাকার মৃত মজুর উদ্দিনের ছেলে মো.আমান এর পৈত্রিক ওয়ারিশ সম্পত্তি নিয়ে আছানুল্লাহ ও তার দুই ছেলে সবুজ ও শহিদুল্লাহর মধ্যে বিরোধ চলছিল। গতকাল মঙ্গলবার সকালে আমানের স্ত্রী আইরিন বেগম বাড়ির পাশে পুকুর পাড়ে গেলে ওতপেতে থাকা বিবাদীগন তাকে অকথ্য ভাষায় বকাঝকা করতে থাকে। পরে বিবাদীরা আইরিনকে কিল, ঘুষি ও লাথি মেরে বেদনাদায়ক জখম করে। ধারালো ছেন দিয়ে স্ত্রী আইরিনের গলায় পোছ মেরে রক্তাক্ত জখম করে। পরে তাকে টেনে হিচড়ে পুকুরের পাশে বোরো জমিতে গর্ত করে পুঁতে ফেলার চেষ্টা করলে আইরিনের ডাকচিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এসে বিবাদীদের হাত থেকে তাকে রক্ষা করে। স্থানীয়রা গর্তের মাটি সরিয়ে ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রো ভর্তি করেন।
ইজিবাইক চালক মো. আমান বলেন, দীর্ঘদিন যাবত পারিবারিক ও পৈত্রিক ওয়ারিশ সম্পত্তি নিয়ে আছানুল্লাহ ও তার দুই ছেলে সবুজ ও শহিদুল্লাহর সাথে বিরোধ রয়েছে। বিবাদীগন আমার স্ত্রীকে শ্লীলতাহানি ও হত্যার চেষ্টা করে। বিবাদীগন এলাকায় প্রভাবশালী হওয়ায় পরিবার নিয়ে বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

মন্তব্য

মন্তব্য