সেনবাগের মগুয়ায় সদ্যবিবাহিত গৃহবধুর রহস্য জনকমৃত্যু। লাশ উদ্ধার, শশুর আটক


সেনবাগ প্রতিনিধি, নোয়াখালী :
সেনবাগের কাদরা ইউপির মগুয়া হকু সওদাগর বাড়ীতে গলায় শাড়ী পেচিয়ে ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত সদ্য বিবাহিত তাসলিম সুলতানা ইপু (১৯) নামে এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।গৃহবধুর স্বামী ওমান প্রবাসী নজরুল ইসলাম। সে কাদরা ইউপির মগুয়া হকু সওদাগর বাড়ীর নওয়াব আলীর পুত্র। রোববার সন্ধ্যা ৬ টায় এ ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে সেনবাগ থানার এসআই গৌর সাহা রাত ৮ টায় লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে।এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গৃহবধুর শশুর নওয়াব আলী (৬০) কে পুলিশ আটক করেছে।
নিহত গৃহবধু মোহাম্মদপুর ইউপির উত্তরমোহাম্মদপুর নামাজী ব্যাপারী বাড়ীর ইব্রাহিম খলিল দুলালের কন্যা।
গৃহবধুর ভাই এমরান রাত ১১টায় জানান,তার বোন ইপুর ৮ মাস আগে দু’পক্ষের সম্মতিতে ৫ লক্ষ টাকা দেনমোহরে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়েছিলো। বিয়ের দুইমাস পর স্বামী নজরুল ওমান চাকুরীতে যোগদান করে। ইপু বেড়ানো শেষে ১০/১২ দিন আগে পিতার বাড়ী হতে স্বামীর বাড়ীতে যায়। রোববার সন্ধ্যায় গলায় শাড়ী পেচিয়ে তার রুমে বিল্ডিংয়ের ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে আত্মহত্যার বিষয়টি রহস্যজনক।
এমরান আরো জানান, তার সদ্যবিবাহিত বোন ইপুর সাথে স্বামীর পরিবার পরিজনের টানাপোড়ন ছিলো। এ ঘটনায় গৃহবধুর পিতা ইব্রাহিম খলিল দুলাল বাদী হয়ে সেনবাগ থানায় অভিযোগ দাখিল করেছেন। তবে কি কারনে সদ্যবিবাহিত গৃহবধু ইপু আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন তার কারন জানা যায়নি।
রাতে সেনবাগ থানার ওসি মিজানুর রহমান বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ময়না তদন্ত রির্পোটের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় প্রদক্ষেপ গ্রহন নেয়া হবে।

মন্তব্য

মন্তব্য