নাটকের প্রয়োজন ছিলনা, সংবিধান সংশোধন করেই ক্ষমতায় থাকা যেত ……. খোকন

সুপ্রিম কোর্ট অত্যন্ত দুর্বল। তাদের দুর্বলতার কারনেই সংবিধান লঙ্ঘন করে নির্বাচনের নামে নাটক মঞ্চস্থ করতে পেরেছে সরকার এবং নির্বাচন কমিশন। যে দেশে সুপ্রিম কোর্ট দুর্বল, সে দেশে সব কিছুই দুর্বল। আমরা চাই সুপ্রিম কোর্টের মেরুদণ্ড শক্ত হোক। তাহলে দেশে বিচার হবে। আর নির্বাচনের নামে নাটকও বাতিল হয়ে যাবে। অন্যথায় দেশে নৈরাজ্য হবে বলে জানান তিনি।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, গত ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের নামে প্রতারণা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন ও সরকার যৌথভাবে জনগণ, সংবিধান, গণতন্ত্র, বাংলাদেশের মানচিত্রের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। এই নির্বাচনী নাটকের কোন প্রয়োজন ছিলনা। সরকারের দুই তৃতীয়াংশ সংখ্যা গরিষ্ঠতা ছিল। তারা সংবিধান সংশোধন করে পাঁচ বছরের স্থলে দশ বছর করলেই পারতো। তাহলে কোটি কোটি মানুষ বিপদগ্রস্থ হতো না। এতে হাজার হাজার কোটি টাকাও রক্ষা হতো। বুধবার সুপ্রিম কোর্টে সংবাদ সম্মেলন করে এসব কথা বলেন তিনি।

খোকন বলেন, আমাদের বিচার বিভাগ অত্যন্ত দুর্বল। সুপ্রিম কোর্ট অত্যন্ত দুর্বল। তাদের দুর্বলতার কারনেই সংবিধান লঙ্ঘন করে নির্বাচনের নামে নাটক মঞ্চস্থ করতে পেরেছে সরকার এবং নির্বাচন কমিশন। যে দেশে সুপ্রিম কোর্ট দুর্বল, সে দেশে সব কিছুই দুর্বল। আমরা চাই সুপ্রিম কোর্টের মেরুদণ্ড শক্ত হোক। তাহলে দেশে বিচার হবে। আর নির্বাচনের নামে নাটকও বাতিল হয়ে যাবে। অন্যথায় দেশে নৈরাজ্য হবে বলে জানান তিনি।

বারের সম্পাদক বলেন, সাংবাদিকদের ইচ্ছা থাকা সত্তে¡ও কোন মিডিয়ার সাহস নেই সত্য তুলে ধরার। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে যমুনা টেলিভিশনের ক্যাবল সম্প্রচার বন্ধ ছিল। খুলনায় দুইজন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা দিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। এসব ঘটনা প্রমাণ করে নির্বাচন কেমন হয়েছে।

মন্তব্য

মন্তব্য