শ্রীপুরে শিক্ষক কর্তৃক ছাত্র নিপীড়ন, এলাকাবাসীর মাদ্রাসা ভাংচুর ॥

শাহীনুর আলম,শ্রীপুর(গাজীপুর)প্রতিনিধি:

গাজীপুরের শ্রীপুরে এক মাদ্রাসার একাধিক শিক্ষার্থীর নিপীড়নের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই অভিযোগে রোববার বেলা ১১টার দিকে মাদ্রাসা ও শিক্ষকের বাসায় হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে স্থানীয়রা। ঘটনার আগেই রোববার সকালে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান অভিযুক্ত শিক্ষক কারী মুহাম্মদ নূরুল আলম। শ্রীপুর পৌরসভার কেওয়া পশ্চিম খন্ড এলাকার মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসা এ ঘটনা ঘটে। শিক্ষক মুহাম্মদ নূরুল আলম একই এলাকার আাবেদ আলীর ছেলে ।

এলাকাবাসীর ভাষ্যমতে, শনিবার সন্ধ্যায় ওই শিক্ষক স্থানীয় এক শিশু (৯) কে রাতে মাদ্রাসার একটি কক্ষে নিয়ে বলাৎকার করে। ঘটনাটি জানাজানি হওয়ায় এলাকাবাসীর কাছে ওই শিশুকে বলাৎকারের চেষ্টার কথা স্বীকার করে পালিয়ে যায় ঔ শিক্ষক।

সামান উদ্দিন সাদিক ও আবুর কালাম নামে দুই স্থানীয় বাসিন্দা বলেন, ‘শুধু এবারই নয়,এর আগেও মাদ্রাসা কয়েকজন শিক্ষার্থী ওই শিক্ষকের বলাৎকারের শিকার হয়। শনিবারের ঘটনার পর তিনি নিজেই বিষয়টি স্বীকার করেছেন। এদিকে, এলাকাবাসী মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসার ইসলাম ও আরবি শিক্ষক ক্বারী মুহাম্মদ নূরুল আলম এর বিচার দাবি করেন। এ বিষয়ে জানতে মদিনাতুল মাদ্রাসা ইসলামি আরবি শিক্ষক কারী মুহাম্মদ নূরুল আলমের মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিলেও সেটি বন্ধ পাওয়া যায়।

শ্রীপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) জাবেদুল ইসলাম বলেন, এলাকাবাসীর কাছ থেকে খবর পেয়ে সেখানে ফোর্স পাঠিয়েছিলাম। কিন্তু তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে কাউকে পায়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে মামলা নেওয়া হবে।

মন্তব্য

মন্তব্য