পলাশে স্কুল ছাত্রীকে যৌনপীড়নের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

 

পলাশ (নরসিংদী) প্রতিনিধি //
নরসিংদীর পলাশে ৭ম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীকে যৌনপীড়নের অভিযোগে হোসেন আলী (২০) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পলাশ থানা পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে ভুক্তভোগি ওই স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে সোহাগ মিয়া (১৮), হোসেন আলী (২০) ও রায়হান শিকদার (১৮) এর যৌনপীড়নের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করলে পলাশ থানার এসআই মীর সোহেল রানা আসামী হোসেন আলীকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত হোসেন আলী পলাশের গজাারিয়া ইউনিয়নের ইছাখালী গ্রামের সলিমউদ্দিনের ছেলে। ভুক্তভোগি ওই স্কুল ছাত্রীর মা জানান, পারুলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণিতে পড়–য়া ওই ছাত্রী স্কুলে যাওয়া-আসার পথে প্রায় সময়ই উত্ত্যক্ত করাসহ বিভিন্ন রকমের কু-প্রস্তাব দিতো। তাদের ভয়ে এসব কু-প্রস্তাবের কথা কাউকে বলতে পারতো না। তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার দুপুরে টিফিনের সময় শেষে ভুক্তভোগি ওই ছাত্রী স্কুলের দু’তলা ভবনে উঠার সময় সোহাগ মিয়া তার বন্ধুদের সহযোগিতায় ওই ছাত্রীকে যৌনপীড়ন করে। এবং হুমকি দেয় যদি এ বিষয়ে কাউকে কিছু জানাইলে স্কুলে যাওয়া-আসা বন্ধ করে দিবে। এ ব্যাপারে পলাশ থানার ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা জানান, স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত ও যৌনপীড়নের ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় একটি মামলা হয়েছে। এবং স্কুলের সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজে ওই ছাত্রীকে যৌনপীড়নের প্রমাণ পাওয়া গেছে। এর সাথে জড়িত অপর দুই আসামীকে গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মন্তব্য

মন্তব্য