কক্সবাজারে ডাক্তার বিহীন১৭টি ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে।


মোঃজাহেদুল ইসলাম(জাহেদ)//

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার ১৮ ইউনিয়নের মধ্যে চিরিঙ্গা ইউনিয়ন ছাড়া বাকী ১৭ ইউনিয়নে স্থাপিত ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের কার্যক্রম একেবারে মুখ থুবড়ে পড়েছে। এসব স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কোনটিতেই মেডিক্যাল অফিসার না থাকায় মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে প্রত্যন্ত এলাকায় স্বাস্থ্যসেবার কার্যক্রম। এছাড়াও কিছু ইউনিয়নের স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলো বছরের পর বছর ধরে তালাবদ্ধ রয়েছে। এবং কোনটিতে গবাদী পশু পালনে ব্যবহার করছেন স্থানীয়রা। যার দ্বরুন সদর উপজেলার প্রাইভেট হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে বাধ্য হচ্ছে বিপন্ন মানুষগুলোর।জানা যায়,চকরিয়া উপজেলার বমু বিলছড়ি ইউনিয়নে নেই কোন সরাসরি সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা মাতামুহুরী নদী পথে বা বান্দরবানের লামা উপজেলা হয়ে বমু বিলছড়ি ইউনিয়নের মানুষ চকরিয়া উপজেলা সদরে চিকিৎসা সেবা নিতে আসেন। অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং নানা সুযোগ-সুবিধা বঞ্চিত এই ইউনিয়নের মানুষের স্বাস্থ্যসেবা জন্য একযুগ পুর্বে এখানে স্থাপন করা হয়েছিল একটি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কেন্দ্র। কিন্তু পাঁচ বছর ধরে কেন্দ্রটি তালাবদ্ধই রয়েছে। দীর্ঘ এই সময়ের মধ্যে এক মুহূর্তের জন্যও খোলা হয়নি স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি। এখানে একজন করে উপ-সহকারি মেডিক্যাল অফিসার, প্যারামেডিক্যাল এবং ভিজিটর দায়িত্বপ্রাপ্ত থাকলেও এদের কেউই উক্ত সময়ের মধ্যে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আসেননি।দোতলা বিশিষ্ট ৩০ হাজার মানুষের সেবা প্রধানের লক্ষে স্থাপিত ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি দেখবাল না করায় আসায় দিন দিন হতশ্রী হয়ে পড়ছে। গেটে তালাবদ্ধ থাকায় এর সামনে স্থানীয় লোকজন গবাদী পশু পালন করছেন। এনিয়ে স্থানীয়রা জেলা ও উপজেলার স্বাস্থ্যবিভাগের কর্মকর্তাদের অবহিত করলেও কোন প্রতিকার মিলেনি। একই অবস্থা উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রেরও। অবশ্য কোন কোন ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র ভাল স্বাস্থ্যসেবা দেয়ার ও নজির আছ।ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রগুলোর দায়িত্বে থাকা মেডিক্যাল অফিসার ডা. সুমি দাশ বলেন, ‘একটি স্বাস্থ্য কেন্দ্রও বর্তমানে বন্ধ নেই।সকল স্বাস্থ্য কেন্দ্রে প্রতিদিন<span style="font-family:Tahoma,sans-serif;color:rgb(51,51,51);background-image:initial;background-position:initial;backgroun

মন্তব্য

মন্তব্য