শ্রীপুরে দুর্ধর্ষ ডাকাতি ॥ স্বর্ণালঙ্কার ও মালামাল লুট ॥ আটক ১

সাইফুল আলম সুমন,নিজস্ব প্রতিবেদক:
গাজীপুরের শ্রীপুরে এক রাতে ২ পরিবারে ডাকাতি হয়েছে। ডাকাতেরা এসময় নগদ প্রায় তিন লাখ টাকা ও সাড়ে চার ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয়। শুক্রবার রাতে উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের ফরিদপুর গ্রামের মৃত নায়েব আলীর ছেলে বাবুল মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

গ্রামাবাসী আল-আমীন (৩৫) নামে এক ডাকাতকে আটক করে গণপিটুনির পর পুলিশে দিয়েছে। সে হবিগঞ্জ জেলা সদরের রামপুর গ্রামের চাঁন মিয়ার ছেলে। এর আগে গত ৩ আগস্ট রাতে শ্রীপুর পৌর শহরের চন্নাপাড়া এলাকার ব্যবসায়ী সাখাওয়াতের বাড়িতেও ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

কৃষক বাবুল মিয়া জানান, রাত আনুমানিক তিনটার দিকে দরজা ভেঙ্গে ৬ সদস্যের একদল ডাকাত ঘরে ঢুকে। তারা অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে বাড়ির লোকদের হাত-পা বেঁধে ফেলে। পরে ওয়্যারড্রপের তালা ভেঙ্গে নগদ ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও ৩ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করে। তাদের চিৎকারে বাড়ির ভাড়াটিয়া সাজু সরদার দরজা খুললে ডাকাতেরা ওই পরিবারের লোকজনদেরও হাত-পা বেঁধে নগদ ২৩ হাজার টাকা ও দেড় ভরি স্বর্ণালংকার লুটে নেয়।

প্রায় আধাঘন্টা ডাকাতিশেষে চলে যাওয়ার সময় কৃষকের ছেলেমেয়েদের চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসে। পরে প্রতিবেশীরা ডাকাতদের পিছু নেয়। ডাকাতদের ধাওয়া করে পাশর্^বর্তী মোল্লাপাড়া থেকে আল-আমীন (৩৫)নামে একজনকে আটক করে গণপিটুনির পর পুলিশে দেয়।

ডাকাত আল-আমীনের ভাষ্যনুযায়ী কৃষক বাবুলের বাড়ির রাজমিস্ত্রি মান্নান ও জামাল তাকে খবর দিয়ে হবিগঞ্জ থেকে নিয়ে আসে। তারা কৃষকের পাকা বাড়ির নির্মা কাজ করছিল। রাজমিস্ত্রিদের বাড়িও হবিগঞ্জে। একই রাতে শ্রীপুর পৌর শহরের কেওয়া গ্রামের জুলহাস উদ্দিন মাস্টারের ছেলে শরীফুল ইসলামের বাড়িতে ও বৈরাগীরচালা এলাকার আনোয়ার হোসেনের বাড়িতে চুরির ঘটনা ঘটে।
এদিকে, গত ৩ আগস্ট রাতে শ্রীপুর পৌর শহরের চন্নাপাড়া এলাকার ব্যবসায়ী সাখাওয়াতের বাড়ির দরজা ভেঙ্গে লোকদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ দেড় লাখ টাকা, একটি মোটরসাইকেল, স্বর্ণালঙ্কার ও মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যায়।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মহসীন জানান, আহত ডাকাতকে চিকিৎসার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনী প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

মন্তব্য

মন্তব্য