শ্রীপুরে কৃষকের জমি বিক্রি করতে ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যের চাপ প্রয়োগের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

গাজীপুরের শ্রীপুরে এক কৃষক গত দুই মাস যাবত ফসল উৎপাদন করতে পারছেন না। লতিফপুর এলাকার নাসির উদ্দিন মোল্লা গোসিঙ্গা ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলামের মাধ্যমে পুলিশি হয়রানির কারণে ওই কৃষক বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

অবশেষে কোনো মামলা ছাড়াই কৃষককে মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে তার ফসলি জমি থেকে কৃষককে আটক করে নিয়ে আসে।

কৃষকের স্ত্রী মোসা. খাদিজা বেগম বলেন, তার প্রতিবেশী নূরজাহান বেগমের জামাতা দেলোয়ার হোসেনের কাছ থেকে তার ছেলে প্রবাসী মনির মোল্লার নামে সাড়ে তিন গন্ডা জমি ক্রয় করেন। ওই জমি থেকে দুই গন্ডা প্রতিবেশী সামসুন্নাহার পারভীনের কাছে বিক্রির জন্য সে নানা কৌশলে তার স্বামীকে হয়রানি করছে। স্থানীয় গোসিঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য রফিকুল ইসলাম সামসুন্নাহার পারভীনের মেয়ের শ্বশুড়। ওই আত্মীয়তার সুযোগে তার স্বামীকে তারা জমি বিক্রি করতে বাধ্য করার চেষ্টা করছে।

খাদিজা বেগম বলেন, তার স্বামী জমিতে মৌসুমী ফসল উৎপাদন করে নিয়মিত বিভিন্ন বাজারে বিক্রি করেন। বাজারে ফসল বিক্রির সময় গোসিঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্য তাকে বিভিন্ন সময় লোক পাঠিয়ে তার কার্যালয়ে নিয়ে যায়। পরে সেখানে জোরপূর্বক সাদা কাগজে স্বাক্ষর দিতে বলে। আমার স্বামী মরে গেলেও জমি বিক্রি করবে না।

এদিকে, কৃষকের স্ত্রী খোদেজা বেগম ২৪ জুলাই গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জমি জবর দখলের হুমকির অভিযোগে একটি মোকদ্দমা করেন। ম্যাজিস্ট্রেট সকল পক্ষকে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখার আদেশ দেন। গত ৩০ জুলাই শ্রীপুর থানা পুলিশ উভয় পক্ষকে নোটিশ জারী করেন। ওই নোটিশ জারীর পরও গত ১৪ আগস্ট শ্রীপুর থানা পুলিশ জমি থেকে কৃষককে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নাজমুস সাকীব জানান, এ ব্যাপারে সামসুন্নাহার পারভীন শ্রীপুরের ইউএনও এর কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এর প্রেক্ষিতে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেয়া হয়েছে।

মন্তব্য

মন্তব্য