দুঃখিত: চুমোর কথা মুখ ফসকে বেরিয়েছে, কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে হামলা করলে বল প্রয়োগ না করে চুমু খাওয়ার বিষয়ে দেয়া বক্তব্যে দুঃখ প্রকাশ করেছেন ওবায়দুল কাদের। জানিয়েছেন, সেই কথা মুখ ফসকে বেরিয়ে গেছে।

সকালে রাজধানীতে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে হামলা করলে কেউ চুমো খাবে না বলে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। আর দুপুরের পর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি।

কাদের বলেন, ‘আওয়ামী লীগ অফিসে হামলা করলে আমরা কি চুমো খাব?- নিজের এ বক্তব্যে কেউ কষ্ট পেলে তাতে দুঃখ প্রকাশ করছি। এ বক্তব্য মুখ ফসকে বের হয়ে গিয়েছে। রাজনীতি এ ধরনের শব্দ ব্যবহারও হয়। কিন্তু কেউ আমার কাছে আশা করে নাই।’

আগের দিন আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির কার্যালয়ে হামলার চেষ্টা হয় নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনকারী ছাত্রদের জমায়েত থেকে। তবে এর পেছনে তাদেরকে উস্কানি দেয়া হয়েছে ফেসবুকে চারজনকে হত্যা ও চারজনকে ধর্ষণের গুজব ছড়িয়ে। সেদিনেই ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, ছাত্ররা নয়, এই হামলা তাদের পোশাক পরে চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াতের কর্মীরা। পরে অবশ্য সন্ধ্যায় ছাত্রদের দুটি দল এই কার্যালয় ঘুরে যায় এবং পরে তারা নিজেরাই জমায়েত করে বলে, এই প্রচার ছিল গুজব।

আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে থাকা নেতা-কর্মীরা অবশ্য এই হামলা মোকাবেলা করেছেন বেশ কঠোরভাবে। আর এই বিষয়টির কথা উল্লেখ করে সকালে ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদেরকে বলেন, ‘রাস্তায় দাঁড়িয়ে আওয়ামী লীগ অফিসের দিকে গোলাগুলি করতে আসলে তাদেরকে বল প্রয়োগ করবে না, চুমু খাবে?’

সাংবাদিক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের ওপর আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের হামলার অভিযোগ নিয়েও কাদেরের কাছে প্রশ্ন রাখেন সাংবাদিকরা। জবাবে তিনি বলেন, ‘যদি কেউ প্রমাণ দিতে পারে তাহলে আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নেব।’

মন্তব্য

মন্তব্য