পলিথিন মোড়ানো নির্বাচনী  পোস্টার অপসারনে নেই কোন উদ্যোগ

হাফিজুল ইসলাম লস্কর :: নানা নাটকীয়তার মাধ্যে দিয়ে ৩০ জুলাই শেষ হয়েছে সিসিক নির্বাচন। নির্বাচন উপলক্ষ্যে নগরীর প্রতিটি পাড়া-মহল্লা চেয়ে গিয়েছিল মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের পোস্টারে। বাদ ছিলনা ওলি-গলিও। কিন্তু, নির্বাচন শেষ হলেও এখনো রয়েগেছে নগরীর আনাচে কানাচে ব্যানার পেস্টুন ও নির্বাচনী পোস্টার।
এছাড়াও নির্বাচনের পাচঁদিন অতিবাহিত হলেও এখনো নগরীর বেশিরভাগ এলাকায় ঝুলছে এসব পলিথিন মোড়ানো নির্বাচনী পোস্টার।
এবার নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী দেয়ালে কিংবা কোন কিছুতে আঠা দিয়ে পোস্টার লাগানো নিষেধ ছিল। তাই ভোটারদের নজর কাড়তে প্রার্থীদের একমাত্র উপায় ছিল দড়ি দিয়ে রাস্তায় পোস্টার টানানো। বাঁধা দিল সেখানেও বৃস্টিও, তাই প্রার্থীরা পোস্টারকে রক্ষা করতে ব্যবহার করেন নিষিদ্ধ পলিথিন।
স্বচ্ছপলিথিন দিয়ে পোস্টারকে মুড়িয়ে সেগুলো লাগানো হয় নগরীর রাস্তায়।
কিন্তু, নির্বাচনের পাচঁ অতিবাহিত হলেও সেগুলো অপসারেণের কোন উদ্যোগ নেই প্রার্থীদের। আর এই পোস্টারগুলো অপসারনে পাচঁদিনে সিটি করপোরেশনের কোন উদ্যোগও চোখে পড়েনি।
নিষিদ্ধ পলিথিনে মোড়ানো এসব পোস্টার এখন ঝুলন্ত অবস্থা থেকে খুলে খুলে পড়ছে রাস্তায়। যা নগরবাসীর চলাচলেও বাঁধার সৃষ্টি করছে।
পুলের মুখের এক ব্যবসায়ী হাকিম ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন- নির্বাচন তো শেষ হয়েছে সপ্তাহ হতে চললো, তবুও কেন পোস্টার অপসারণ করা হচ্ছে না। প্রার্থী কিংবা সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষের চোখে কি এগুলো পড়ে না?
তিনি আরো বলেন- প্রচারণা শেষ হওয়ার সাথে সাথেই এগুলো স্ব-উদ্যোগে খুলে নেওয়া উচিৎ ছিল। সেটি না করায় পোস্টারগুলো খুলে রাস্তায় পড়ছে এবং চলাচলে মারাত্মক বিঘ্ন সৃষ্টি করছে।

মন্তব্য

মন্তব্য