কালীগঞ্জে সড়ক ও জনপথের রাস্তাটি খানাখন্দে ভরা, জনদুর্ভোগ

ইব্রাহীম খন্দকার, কালীগঞ্জ,গাজীপুর //
কালীগঞ্জ উপজেলা সদর রাস্তাটি খানাখন্দে ভরে যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তাটির বিভিন্ন স্থানে পিচ উঠে গর্তে পরিণত হয়েছে। সামান্য বৃষ্টি হলে গর্তে পানি জমে থাকে। ফলে যানবাহন চলাচলের সময় যানবাহন মারাত্মক ভাবে বিকল হয়ে দুর্ঘটনা ঘটছে। অতিরিক্ত যানবাহন ও ভারী যানবাহন চলাচলে রাস্তাটির উপর চাপ বেড়ে চলেছে। রাস্তাটি মেরামত না করায় দিন দিন ছোট ছোট গর্তগুলো বড় গর্তে পরিণত হচ্ছে। এতে জনদুর্ভোগ বেড়ে চলছে।
কালীগঞ্জ বাইপাসের মাথা থেকে কালীগঞ্জ ঘোড়াশাল শহীদ ময়েজউদ্দিন সেতু পর্যন্ত কালীগঞ্জ পৌর এলাকা হলেও রাস্তার কাজের দায়িত্ব সড়ক ও জনপথ বিভাগের। সংশ্লিষ্ট দপ্তরের উদাসীনতায় রাস্তা মেরামতের কাজটি বিলম্ব হচ্ছে। এতে সাধারন জনগন, পথচারী,যাত্রীবাহী পরিবহনগুলো চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। পাশাপাশি পরিবহনে বিভিন্ন যানবাহন গর্তে পড়ে বিকল হয়ে পড়ছে। যানবাহন গর্তে পড়ার ফলে যানজটের সৃষ্টি হয়ে থাকে। কিছু স্থানে গর্তগুলোর মধ্যে ভাঙ্গা ইট দেয়ার কারনে যানবাহন চলাচলে আরো বেশি সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে বলে চালকরা অভিযোগ করেছে ।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, কালীগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের সামনে পিচ উঠে রাস্তাটি গর্ত হয়ে গেছে। দড়িসোম মসজিদ ও মাদ্রাসা সংলগ্ন রাস্তাতে ছোট-বড় অনেক গর্ত রয়েছে। কালীগঞ্জ পূবালী ব্যাংক, ইউসিবি ব্যাংক, কর্মসংস্থান ব্যাংক ও কালীগঞ্জ বাসস্ট্যান্ডের রাস্তাটিতে অনেক স্থানে পিচ উঠে ছোট-বড় অসংখ্য গর্ত হয়ে গেছে। যানবাহন ও সাধারন জনগনের চলাচল করতে চরম সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। অল্প বৃষ্টি হলে পানিতে গর্তগুলো ভরে যায়। দ্রæতগামী ট্রাক, লরি ও বিভিন্ন যানবাহন চলার ফলে সেই সব গর্ত আরো বড় গর্তে পরিণত হচ্ছে। কালীগঞ্জ স্টুডেন্ট লাইব্রেরীর সামনে পিচ উঠে গেছে। তাছাড়া মধ্য বালীগাঁও, পূর্ব বালীগাঁও, বালীগাঁও শেষ মাথায়, ঘোনাপাড়া মোড় প্রধান সড়কের বিভিন্ন স্থানে খানাখন্দে ভরপুর।
মাহিন্দ্র ও অটোবাইকের কয়েকজন চালকের সাথে কথা বললে তারা জানান, কালীগঞ্জ প্রাণ-আরএফএল ইন্ডাষ্ট্রিয়াল পার্ক ফ্যাক্টরির রাস্তাটি সবচেয়ে বেশি খানাখন্দে ভরা। প্রাণ কোম্পানী নিজস্ব অসংখ্য কভারভ্যান ও পরিবহন ভ্যান প্রতিনিয়ত এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করার ফলে সেস্থানের রাস্তাটি বেশি গর্ত হয়ে পড়েছে। রাস্তাটি সংস্কার না করায় এলাকাবাসীর চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। প্রাণ কোম্পানী পেরিয়ে ঘোড়াশাল যাওয়ার পথে মুলগাঁও হিন্দু পাড়া এলাকার রাস্তাটির অবস্থা আরো নাজুক। রাস্তাটি খানাখন্দে রয়েছে পাশাপাশি কাঁদা মাটিতে রাস্তাটি ভরে গেছে। কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন স্বপনের মুলগাঁও বাড়ির সামনে প্রধান সড়কটির বেহাল দশা।
তাছাড়া কালীগঞ্জ সেভেন সার্কেল (বাংলাদেশ) সিমেন্ট ফ্যাক্টরির সামনে রাস্তাটি কয়েকস্থানে পিচ উঠে বড় বড় গর্তে পরিণত হয়েছে। কোম্পানীর অসংখ্য ট্রাক প্রতিদিন চলাচলের ফলে রাস্তাটির ক্ষতি হচ্ছে বেশি। এতে স্থানীয় মাহেন্দ্র, সিএনজি, অটোবাইক, অটোরিকশাগুলো এ রাস্তা দিয়ে যাত্রী নিয়ে যেতে দুর্ভোগ পোহাতে হয়। বেশি খানাখন্দের জন্য যানবাহন নষ্ট হচ্ছে এবং ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটে চলছে। কালীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অফিস সংলগ্ন প্রাণ কোম্পানীর জমির সামনে রাস্তাটির ৩০-৩৫ হাত জুড়ে পুরো পিচ উঠে গভীর গর্তে পরিণত হয়েছে। অনেক যানবাহন এই স্থানে চলাচল সময় গর্তে পড়ে আটকে যায়। আবার একটি গাড়ি এলে পেছনে পেছনে আরেকটি গাড়ি যায় না গর্ভে পড়ার ভয়ে। দীর্ঘদিন যাবত রাস্তাটি সংস্কার না করায় সাধারনযাত্রী, এলাকাবাসী, গাড়ির চালকরা অবর্ণনীয় দুর্ভোগ সহ্য করছেন। গাজীপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী নাইম রেজার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, টেন্ডার হলে প্রজেক্টের মাধ্যমে কাজ করা হবে।

মন্তব্য

মন্তব্য