সাংবাদিককে খুনের চেষ্টা

পাপিয়া বাড়ৈ (জয়), প্রতিবেদক // গত শুক্রবার রাতে সাহাদাত হোসেন (৪৮) নামের এক সাংবাদিককে নির্মমভাবে কুপিয়ে জখম করে নির্জন স্থানে ফেলে যায় একদল দুষ্কৃতি । মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার কবিরাজপুর ইউনিয়নের কাটা গাং পাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এখন তিনি ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলার ভাষড়া গ্রামের মান্নান মাতুব্বরের ছেলে সাহাদাত হোসেন। তিনি কালামৃধা ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সেক্রেটারী। সাহাদাত হোসেন কবিরাজপুর ছইফউদ্দিন ডিগ্রি কলেজের শরীরচর্চা বিভাগের শিক্ষক ও সি এন এন বাংলা টিভির সাংবাদিক এবং রাজৈর উপজেলার প্রেসক্লাবের ক্রীড়া সম্পাদক। শুক্রবার সন্ধ্যা পর তার পেশাগত কাজ শেষ করে মটরসাইকেল করে বাড়ী ফেরার পথে টেকেরহাটের কবিরাজপুর সড়কের কাটা গাং পাড় এলাকায় পরিকল্পিতভাবে উৎপেতে থাকা একদল সন্ত্রাসী তার পথ অবরোধ করে এবং পার্শবর্তী কলাবাগানে মুখ বেধে নিয়ে যায়। এসময় তারা সাহাদাতের ব্যবহৃত ক্যামেরা, মানিব্যাগ ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে নেয়। পরে তারা হাত পা বেধে বেধরকভাবে তাকে কুপিয়ে জখম করে কলাবাগানের ভেতর রেখে তার মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায়। পরেরদিন সকালে তার সুরচিৎকার এর শব্দ শুনে ওখানকার কিছু লোক তাকে উদ্বার করে এবং ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাকে ভর্তি করে। এলাকাবাসীর কাছ থেকে জানা যায়, ঐ স্থানটি নির্জন হওয়ায় প্রায়ই ওখানে ছিনতাই ও ধর্ষনের ঘটনা ঘটে।
এদিকে রাজৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জিয়াউল মোর্শেদ জানান, আমরা ঘটনাটি তদন্ত করছি এবং যত দ্রুত সম্ভব দোষীদের গ্রেফতার করার চেষ্টা করব।

মন্তব্য

মন্তব্য