গলাচিপায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে – চোখে মরিচ ছিটিয়ে কুপিয়ে জখম

 

দশমিনা প্রতিনিধি //জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে পটুয়াখালীর গলাচিপায় চোখে মরিচ ছিটিয়ে মো. সোহাগ (১৮),মো. সোহেল চৌকিদার (৩০) এবং মো. কবির চৌকিদার (৪০) নামে তিন জনকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষ। বৃহস্পতিবার (২৬ জুলাই) বেলা ১২ টায় গলাচিপা উপজেলার চরবিশ্বাস ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের চরআগস্তি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
জানা গেছে, গলাচিপা উপজেলার চরবিশ্বাস ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের চরআগস্তি গ্রামের একই বাড়ির মৃত মো. আলম,মো. জালাল,মৃত মো. ছালাম ও মৃত মো. মান্নানের কাছ থেকে ওই এলাকার মো. মকবুল ও সেলিম চৌকিদার গংরা কবলা সূত্রে ১৯৮১ সালে ৩ একর ফসলি জমি কেনেন। জায়গা কেনার সূত্রে মো. মকবুল ও সেলিম চৌকিদার গংরা দীর্ঘ বছর ধরে ভোগদখল করে আসছেন। ঘটনার দিন মো. মকবুল ও সেলিম চৌকিদার গংদের মো. সোহাগ,মো. সোহেল চৌকিদার, মো. কবির চৌকিদার,মো. পারভেজ চৌকিদারসহ কয়েকজন ক্রয়কৃত জমিতে হাল চাষ করতে গেলে মৃত মো. আলমের ছেলে মো. সুজাউদ্দিন তাদের বাড়ির মো. মুছা,মো. ইউসুফ,মো.নিজাম ও মো. সবুজসহ প্রায় ১২-১৩ জনকে নিয়ে সেখানে উপস্থিত হয়ে হাল চাষে বাধ দেয় ও চোখে মরিচের গুড়ো ছিটিয়ে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে কুপিয়ে ৫ জনকে জখম করেন। পরে স্বজনরা আহতদের উদ্ধার করে গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে কর্তব্যরত চিকিৎসক আহতদের মধ্যে মো. সোহাগ,মো. সোহেল চৌকিদার ও মো. কবির চৌকিদারের অবস্থা আশংঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। আহতদের মধ্যে মো. কবির চৌকিদারের মাথায় কোপানোর কারণে তাঁর অবস্থা সবচেয়ে বেশি আশংঙ্কাজনক। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার মো. মাহাতাব উদ্দিন বাদী হয়ে গলাচিপা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মন্তব্য

মন্তব্য