গোল উৎসব করে আবার চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স

অনলাইন ডেস্ক//২০ বছর পর দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বফুটবলের সবচেয়ে বড় ট্রফিটি ঘরে তুলে নিল ফ্রান্স। এর আগে ১৯৯৮ সালে ব্রাজিলকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয় ফরাসিরা। ফিফা বিশ্বকাপের প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠেও ইতিহাস সৃষ্টি করতে পারল না ক্রোয়েশিয়া।

১৯৯৮ সালে দিদিয়ের দেশমের অধিনায়কত্বে বিশ্বকাপ জয় করে ফ্রান্স। আজ ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে সেই দেশমের কোচিংয়ে ক্রোয়েশিয়াকে ৪-২ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো এ শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে।

আজ রোববার লুঝনিকিতে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে গোল উৎসব করে ফ্রান্স। প্রথম গোলটি আত্মঘাতি গোল থেকে পেলেও পরে একে একে গোল করেন গ্রিজম্যান, পগবা ও কিলিয়ান এমবাপ্পে।

ইতিহাসে প্রথমাবের মতো ফাইনালে উঠলেও ভাগ্য আজ ক্রোয়েটদের হয়ে কথা বলেনি। ম্যাচের ১৮ মিনিটের মাথায় মানজুকিচের ভুলে গোল খেয়ে বসে দেশটি। তবে এর ১০ মিনিট পরেই স্বস্তি ফিরিয়ে এনে পেরেচিস। অসাধরণ গোল করে সমতায় ফেরান ক্রোয়েশিয়াকে।
ক্রোয়েশিয়ার এ স্বস্তি বেশিক্ষণ টিকেনি। নাটকীয়তা ভরা ম্যাচে এবার গ্রিজম্যান পেনালটি থেকে গোল দিয়ে এগিয়ে দেন ফ্রান্সকে। ৩৮ মিনিটের মাথায় গোলটি করেন গ্রিজম্যান।
বিরতি থেকে ক্রোয়েট দের জালে আরও দুবার বল জড়ান ফরাসিরা। এবার গোল দিয়ে জয়ের ব্যবধান বাড়ান কিলিয়ান এমবাপ্পেও পগবা।

আজ রোববার লুঝনিকিতে বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় ফাইনালের মহারণ শুরু হয়। সেমিফাইনালে শক্তিশালী বেলজিয়ামকে হারিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে ওঠে ফ্রান্স। ফরাসিদের দলে রয়েছে এমবাপ্পে-পগবাদের মতো একঝাঁক তরূণ তারকা।

অন্যদিকে সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ফাইনালে ওঠে ক্রোয়েশিয়া। এর আগে ফিফা বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল পর্যন্ত পৌঁছালেও ফাইনালে উঠার স্বাদ পায় দেশটি।

১৯৯৮ সালের চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। সে বার তারকায় ভরপুর ব্রাজিলকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয় ফ্রান্স। এরপর ২০০৬ সালে ফাইনালে উঠলেও ইতালির কাছে হেরে দ্বিতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন হওয়া থেকে বঞ্চিত হয় দেশটি।

ফাইনালের কিক-অফের আগে লুঝনিকেতে বসে রাশিয়া বিশ্বলাপের সমাপনী আসর। উইল স্মিথ, ইরা ইস্ত্রেফি ও নিকি জ্যাম মাতিয়ে রাখেন দর্শকদের। এ ছাড়া সমাপণী অনুষ্ঠানে দেখা যায় ব্রাসজিলিয়ান সুপারস্টার রোনালদিনহোকে।

সূত্র:আমাদের সময়

মন্তব্য

মন্তব্য