পটুয়াখালীতে চোখ ও হাত পা গুরিয়ে দিল দিনের বেলা

সোহেল রানা,পটুয়াখালী প্রতিনিধি:
পটুয়াখালীর বাউফলে পূর্ব বিরোধীতার জেরে প্রতিপক্ষের লোকজন দেশিও ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা করে মিন্টু মৃধা (৪০) নামের এক ব্যক্তির ডান চোয়াল, ডান হাত এবং ডান পা কুপিয়ে প্রায় বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে। এ সময় মিন্টু মৃধার একটি চোখ খুঁচিয়ে তুলেও ফেলা হয় ।

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার ১১ সেপ্টেম্বর দুপুর নাগাদ মদনপুর ইউনিয়েন দ্বিপাশা উচা পুলের কাছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পারিবারিক সূত্র প্রতিবেদককে জানায় , বাউফল সদর ইউনিয়নের গোসিংগা গ্রামের বাসিন্দা মিন্টু মৃধার সাথে প্রতিপক্ষ মিজানুর রহমান মাতুব্বরের সাথে ঘেরের মাছ লুটের ঘটনা নিয়ে পাল্টাপাল্টি মামলা চলে আসছিল।

মিন্টু মৃধা একটি মামলায় জেল খেটে মুক্তি পেয়ে বাড়ি আসেন। ঘটনার দিন দুপুর নাগাদ মিন্টু মৃধা দ্বিপাশা উচা পুলের কাছে একটি চায়ের দোকানে চা পান করছিল। ইতোমধ্যে মিজানুর রহমান মাতুব্বর ও তার ভাই সোহেল মাতুব্বরের নেতৃত্বে ৫-৭ জন দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র নিয়ে তার উপর হামলা চালায় এবং এলোপাতালি ভাবে কোপায়।

এক পর্যায় দুর্বৃত্তরা মিন্টু মৃধার বাম চোখ খুঁচিয়ে তুলে ফেলে, ডান চোখটিও নষ্ট করার চেষ্টা করে, দুর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মিন্টু মৃধার ডান চোয়াল মারাক্তক জখম হয়। এ ছাড়াও তার ডান পা ও ডান হাত প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয় লোকজন ও স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে বাউফল হাসপাতালে নিয়ে যায় এবং প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয় চিকিৎসারত ডাক্তার।

জরুরী বিভাগের চিকিৎসক তানভীর আহমেদ প্রতিবেদকে জানায়, মিন্টু মৃধার বাম চোখটি খুচিয়ে তুলে ফেলা হয়েছে। এ ছাড়া তার শরীরে গুরুতর জখম রয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় আমরা তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দিয়েছি।

মন্তব্য

মন্তব্য