বাড়ি থেকে আইপিএলে ধারাভাষ্য দেওয়া হবে

করোনার কারণে ঘরে বসে অফিসের কাজ করা খুব কমন বিষয় হয়ে গেছে। এবার নতুন কিছু হতে যাচ্ছে। আসন্ন আইপিএলে ধারাভাষ্যকাররা যাতে নিজেদের বাড়িতে বসেই ধারাভাষ্য দিতে পারেন, সেই চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। গত রবিবার দক্ষিণ আফ্রিকার সেঞ্চুরিয়নে একটা ৩৬ ওভারের প্রদর্শনী ম্যাচে তিন ধারাভাষ্যকার সঞ্জয় মঞ্জরেকর, ইরফান পাঠান এবং দীপ দাশগুপ্তকে বাড়ি থেকে ধারাভাষ্য করায় স্টার স্পোর্টস। এরপর থেকেই নতুন এই ভাবনা নিয়ে আলোচনা চলছে।

আইপিএলে কমোন্ট্রি বক্সে এবার বিশাল ধারাভাষ্য দল থাকবে না। মাঠে কয়েকজন ধারাভাষ্যকার থাকবেন। বাকিরা করবেন বাড়ি থেকে। একটা ওয়াইফাই কানেকশন আর টিভি থাকলেই বাড়ি থেকে ধারাভাষ্য দেওয়া সম্ভব। অতএব মনে করা হচ্ছে, আইপিএলের স্টুডিও ধারাভাষ্যটাই এবার ধারাভাষ্যকারদের বাড়িতে তুলে নিয়ে যাওয়া হতে পারে।

ধারাভাষ্যকারদের কেউ কেউ মনে করছেন, সেটা হওয়া উচিতও। করোনা আক্রান্ত মুম্বাইয়ের অবস্থা এখন এত খারাপ যে, স্টার স্পোর্টস স্টুডিও কার্যত বন্ধ। সেপ্টেম্বর মাসের শেষে মুম্বাইয়ের অবস্থা আরও করুণ হবে। মুম্বাইয়ের স্টার স্পোর্টসের স্টুডিওতে টেকনিক্যাল টিম যেখানে বসে, সেটা আসলে ১০ ফুট বাই ১০ ফুটের একটা ঘর। সেখানে ৫-৬ জনকে গাদাগাদি করে বসে থাকতে হয়। এর চেয়ে তো বাড়ি থেকেই সব করা অনেক ভালো।

তবে এর কিছু অসুবিধার কথাও বলেছেন ধারাভাষ্যকাররেরা। ইরফান পাঠান যেমন বলেছেন যে, রুমে একাকী বসে ধারাভাষ্য করার সময় তার শিশু সন্তান ক্রমাগত এসে দরজায় ধাক্কা দিয়েছে। দীপ দাশগুপ্ত বলেন, মাঠ থেকে ধারাভাষ্য করা আর বাড়ি থেকে কমন্ট্রি করার মধ্যে অনেক পার্থক্য আছে। বাড়ি থেকে করলে পুরোটাই আপনাকে ক্যামেরাম্যান কী দেখাচ্ছে তার উপর নির্ভর করে চলতে হবে। তারপরেও তারা নতুন এই উদ্যোগকে স্বাগত জানাচ্ছন।

মন্তব্য

মন্তব্য