ড. ইউনূস বলেন ভারত অর্থনৈতিকভাবে কোভিডের কারণে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবে

এ কথা তিনি সোমবার বলেন ‘প্যানআইআইটি গ্লোবাল ই-কনক্লেভ’ শীর্ষক সম্মেলনে। ভার্চুয়াল এ সম্মেলনে গত রোববার থেকে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ইউনূস এখন ভিয়েনায় রয়েছেন। কাউন্টার পাঞ্চ ভারতের ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানগুলো (এমএফআই) যেন জনগণের আমানত জমা রাখতে পারে, তার অনুমতি দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস।ড. ইউনূস বলেন, বর্তমানে মাইক্রো ফাইন্যান্স ইনস্টিটিউট (এমএফআই) গুলোকে অর্থের জন্য ব্যাংকের কাছে যেতে হয়। ভারত সরকারের কাছে আমার আবেদন, এমএফআইগুলোকে জনগণের কাছ থেকে আমানত গ্রহণের অনুমতি দেওয়া হোক।
তিনি বলেন, ভারতের রিজার্ভ ব্যাংক (আরবিআই) কিছু স্মল ফাইন্যান্স ব্যাংক খোলার অনুমতি দিয়েছে, যারা আমানত রাখতে পারে।
তার মতে, বিনিয়োগ হচ্ছে অর্থনীতির অক্সিজেন। ব্যাংকিং ব্যবস্থা দরিদ্রদের ঋণ দিতে আগ্রহী নয়। আর তাই তাদের জন্য একটি বিকল্প ব্যাংকিং ব্যবস্থা তৈরি করা উচিত।
উজ্জীবন ও জানার মতো বেশ কয়েকটি ভারতীয় এমএফআই, আরবিআই এর নিবন্ধিত হয়ে এখন ছোট ফাইনান্স ব্যাংকে রূপান্তরিত হয়েছে। এই খাতকে ‘সামাজিক ব্যবসা’ হিসাবে সংজ্ঞায়িত করা উচিত।

মন্তব্য

মন্তব্য