কালীগঞ্জে টিসিবির খাদ্য সামগ্রী বিক্রি হচ্ছে ন্যায্যমূল্যে

মো: ইব্রাহীম খন্দকার,সিনিয়ার রিপোর্টার //
করোনাভাইরাসের প্রভাবে সারাদেশের মধ্যবিত্ত ও নিন্ম মধ্যবিত্তরা কোথাও হাত পাততে পারছেন না। আবার এই কষ্টের কথা কারো সাথে বলতেও পারছেন না, নিরবে নিভৃতে তারা তাদের কষ্ট বয়ে বেরাচ্ছেন। ঠিক এমন সময় বাজার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সারা দেশের ন্যায় গাজীপুরের কালীগঞ্জে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) ন্যায্য মূল্যে খাদ্য সামগ্রী বিক্রি করছে। এর ফলে ওই সকল মধ্যবিত্ত ও নিন্ম মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোর মাঝে ফিরে এসেছে খানিকটা স্বস্থি।
সোমবার সকালে উপজেলার জাঙ্গালীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী সারোয়ার হোসেনের বাড়ী সংলগ্ন রাস্তায় নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) তৃতীয় দিনের মতো ন্যায্য মূল্যে খাদ্য সামগ্রী বিক্রয় করা হয়। পণ্য কিনতে এসে নারী-পুরুষ ক্রেতারা নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে সারিবদ্ধ হয়ে দাঁড়িয়ে এ পণ্য ক্রয় করেন। প্রতিজন ক্রেতা মাত্র ৮৬০ টাকায় ৫ লিটার তেল, ২ কেজি পিয়াজ, ২ কেজি চিনি, ১ কেজি ডাল, ৩ কেজি বুট ও আধা কেজি খেজুর ক্রয় করছেন। তবে দীর্ঘ সময়ে লাইনে দাঁড়িয়ে থেকেও কেহই পণ্য না নিয়ে খালি হাতে বাড়ি ফিরে যায় নি। এতে সাধারণ মানুষের মাঝে খানিকটা স্বস্থি ফিরে এসেছে।
এ বিষয়ে টিসিবি’র ডিলার মেসার্স মা এন্টারপ্রাইজ এর সত্বাধিকারী মো. শফিউল আলম রতন বলেন, নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে ক্রেতারা সারিবদ্ধ হয়ে দাঁড়িয়ে পণ্য ক্রয় করেছেন। পণ্যের মানও ভালো ছিলো। কেউ পণ্য না নিয়ে খালি হাতে বাড়ি ফিরে যায় নি। ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী পণ্যের বরাদ্দ আরোও বাড়ানো প্রয়োজন।
এ সময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মো. শফিকুল ইসলাম শফিক, জাঙ্গালীয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল পাল, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জালাল উদ্দিন ভূইয়া, ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. গোলজার হোসেন মাষ্টার, বিশিষ্ট সমাজ সেবক গাজী ফয়সাল ও অ্যাডভোকেট গাজী সোহেল প্রমূখ। এদিকে সাধারন মানুষ টিসিবির পণ্য ক্রয় করতে পেরে আনন্দ প্রকাশ করে বলেন, আমরা খুব-ই আনন্দিত। টিসিবির পণ্যের সাথে আরোও কিছু নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস যোগ করে নিয়মিত বিক্রির জন্য প্রশাসনকে অনুরোধ করেন।

মন্তব্য

মন্তব্য