চট্টগ্রাম থেকে আসা যাত্রী ফের চট্টগ্রামেই ফেরত

সন্দ্বীপ প্রতিনিধি, চট্টগ্রাম:
করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে উপজেলা সন্দ্বীপে অনেক নিষেধাজ্ঞার মধ্যে নৌ-পথ অন্যতম।সন্দ্বীপের সকল ঘাট চালু আছে কাঁচামাল সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী আসার জন্য, রোগীর জন্য কিন্তু যাত্রী পারাপারের উপর নিষেধাজ্ঞা আছে প্রশাসন থেকে।তারপরও বিনা পারমিশনে সন্দ্বীপে ডুকে যাচ্ছে। আজ ২৮শে এপ্রিল দুপুর ২টায় ৪২জন যাত্রী নিয়ে সন্দ্বীপ আসে তিনটি মালবাহী বোড।
সেই সময় ঘাটে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় দৈনিক দিন প্রতিদিন পত্রিকার চট্টগ্রাম জেলা ব্যুরো রিয়াদুল মামুন সোহাগ ও দ্বীপ টিভির সন্দ্বীপ প্রতিনিধি কাউছার মাহমুদ দিদার। এছাড়া ডিউটিতে থাকা এস,আই নাসির উদ্দীন সহ আরো তিন পুলিশ সদস্য।বিষয়টা নিয়ে রিয়াদুল মামুন সোহাগ ও এস,আই নাসির উদ্দীন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রথমে সন্দ্বীপ থানার অফিসার্স ইনচার্জ শেখ শরীফুল আলম কে অভিহিত করেন।তিনি জানান আমার সাথে কোন প্রকার যোগাযোগ করা হয় নাই তাই যাত্রী আসার বিষয়ে আমি কিছু জানিনা।
অবশেষে ওসি শেখ শরীফুল আলমের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী  এস,আই নাসির উদ্দীন ও রিয়াদুল মামুন সোহাগের প্রচেষ্ঠায় শুধু রোগী ও রোগীর সাথের দুইজন লোক ছাড়া বাকি সবাই কে ফেরত পাঠানো হয়েছে। তারমধ্যে দুইজন ওমান থেকে আসা যাত্রী ছিলেন। ৪২জন যাত্রীর মধ্যে ১৬জনকে রিটার্ন পাঠানো হয়েছে যারা আসার যথাযথ কারণ দেখাতে পারেন নাই।
উল্লেখ্য যে, উপজেলা সন্দ্বীপ এখনো নিরাপদ মনে করেন সুশীল সমাজের লোকজন কারণ এখন পর্যন্ত কোন করোনা রোগী পাওয়া যায় নাই কিন্তু বাহির থেকে যদি সন্দ্বীপ আসা পুরাপুরি বন্ধ করা যায় তাহলে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করা সম্ভব।
এই বিষয়ে সন্দ্বীপ থানার অফিসার্স ইনচার্জ শেখ শরীফুল আলম বলেন সন্দ্বীপের সব ঘাটে পুলিশ মোতায়েন করা আছে।এর আগেও আমরা দুইটা লালবোড ধরেছি।আমাদের অভিযান চলবে এইভাবে পাশাপাশি জনগণ ও আমাদের সাহায্য করলে আমরা উপকৃত হবো।

মন্তব্য

মন্তব্য