সন্দ্বীপে পৌরসভার ঘরে ঘরে এমপি মিতার ভালোবাসার উপহার বিতরন

ব্যুরো প্রধান, চট্টগ্রামঃ
সন্দ্বীপে  সাংসদ মাহফুজুর রহমান মিতার দ্বিতীয় বারের মতো করোনা পরিস্থিতে নিন্ম মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত সহ মোট ৪ হাজার ৫শ পরিবারকে তার ভালোবাসার উপহার সামগ্রি বিতরনের অংশ হিসেবে আজ সন্দ্বীপ পৌরসভার বাড়িতে বাড়িতে দরজায় কড়া নেড়ে ত্রান পৌঁছে দিলেন ছাত্রলীগ ও আওয়ামীলিগ নেতৃবৃন্দ।আজ এ ত্রান সামগ্রী মাথায় নিয়ে প্রকৃত জনসেবার দৃষ্টান্ত রাখলেন পৌরসভা আওয়ামীলিগের সভাপতি মুক্তাদের মাওলা সেলিম,সাধারন সম্পাদক সফিকুল মাওলা, হারামিয়া আওয়ামীলিগের সাধারন সম্পাদক মোঃ জসিম ও  উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি  মাহফুজুর রহমান সুমন সহ এক ঝাঁক উদ্যমী ছাত্রলীগ কর্মী।
এমপি মিতা করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউন শুরু হওয়ার পর প্রথম ধাপে সম্পুর্ন ব্যক্তিগত  তহবিল হতে  দরিদ্র, হতদরিদ্র  ৩ হাজার ৫শ পরিবারকে ত্রান সহায়তা পৌঁছে দিয়েছেন।এরপর এবার দ্বীতিয় ধাপে চিন্তা করলেন মধ্য বিত্ত ও নিন্ম মধ্য বিত্তদের কথা। যে সমস্ত পরিবারে পরিবার প্রধান বিদেশে অবস্থান করছে বা যারা ছোটখাট চাকুরি ও ব্যবসা করে জীবন অতিবাহিত করছে ছাত্রলীগের কর্মীদের সহযোগিতায় হটলাইনে যোগাযোগের মাধ্যমে তাদের তালিকা প্রস্তুত করে এ ত্রান বিতরন শুরু করেছিলেন ১৭ এপ্রিল।
প্রথম দিনে এমপি মাহফুজুর রহমান মিতা সংবাদ ব্রিফিং শেষে নিজেই বাড়ি বাড়ি এ উপহার পৌঁছে দিয়েছেন। বর্তামানে তিনি ঢাকায় অবস্থান করার ফলে ছাত্রলীগ ও আওয়ামীলিগ নেতৃবৃন্দ সে দায়িত্ব পালন করছেন।যার  সার্বিক নির্দেশনায় রয়েছে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহফুজুর রহমান সুমন ও এমপির একান্ত সহকারী মোঃ জসিম।
এ বিষয়ে ত্রান বিতরনের সমন্বয়কারী ও উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মাহফুজুর রহমান সুমন এক স্বাক্ষাৎকারে বলেন আমাদের প্রবাসী ভাইয়েরা লকডাউনের কারনে উপার্জনহীন হয়ে পড়েছেন। তাদের পরিবার এখন কষ্টে দিনাতিপাত করছে। তাই তাদের কষ্টের ভাগিদার হওয়া বা তাদের বিপদে পাশে থাকার জন্য এমপি সাহেব সম্পুর্ন ওনার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে এ উপহার প্রদান করছেন। আমরা ওনার ত্রান বিতরনের সহযোগী হতে পেরে গর্বিত। এর জন্য ছাত্রলীগের সকল উপজেলা ও ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দকে ধন্যবাদ জানাই।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা এমপির এ ত্রান বিতরন সম্পর্কে বলতে গিয়ে বলেন ওনার পিতা দ্বীপবন্ধু মুস্তাফিজুর রহমান আজীবন মানুষের সংকটময় মুহুর্তে পাশে থেকে দ্বীপবন্ধু উপাধী পেয়েছেন আর একই চিন্তা ওনার মাধ্যমে প্রতিফলনের কারনে তিনি দ্বীপরত্ন হিসেবে ইতিমধ্যে সন্দ্বীপের জনগনের মাঝে স্থান করে নিয়েছেন। ওনার এ দানের হাত আরো প্রসারিত হবে এটাই সবার প্রত্যাশা।

মন্তব্য

মন্তব্য