গলাচিপায় ইউনিয়ন যুবলীগের হামলায়  পুুলিশসহ সাংবাদিক  আহত গ্রেফতার ৪!

মু. জিল্লুর রহমান জুয়েল, পটুয়াখালী।
পটুয়াখালীর গলাচিপায় রতনদী তালতলী ইউনিয়নের কাটাখালী বাজারে রবিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে একটি অপহরণের ঘটনায় আসামী গ্রেপ্তারকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও স্থানীয়দের মধ্যে সংঘর্ষে সাতজন পুলিশ ও দুইজন সংবাদকর্মীসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন বলে স্থানীয় প্রতিনিধির পাঠানো তথ্যে জানা যা।
আহতরা হলেন, গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মো. হুমায়ুন কবির, এসআই সহিদুল, গাজী ফজলুর রহমান, আল মামুন, এএসআই মেহেদী, শাহদাৎ, রিয়াজ আহত হয়েছেন। এছাড়া বেসরকারি টেলিভিশন মাইটিভির উপজেলা প্রতিনিধি হাসান এলাহী ও এশিয়ান টেলিভিশনের সাব্বির আহম্মেদ ইমনসহ অন্তত ১১জন গ্রামবাসী আহত হয়েছেন বলে জানাগেছে। এদিকে ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতির নেতৃত্বে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় রতনদী তালতলী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মো. রিয়াজ খলিফা (৩৫), ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খোকন (২২) জেলা ছাত্রলীগের সহসম্পাদক শাহরিয়ার সিফাত (২৫) ও আবদুর রশিদ (৫৫) নামের চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এদিকে এ ঘটনায় রিয়াজ খলিফাকে প্রধান আসামী করে মোট সাত জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ১০-১৫ জনের নামে গলাচিপা থানার এসআই মো. সহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে রবিবার রাতে একটি মামলা দায়ের করেন।গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মো. হুমায়ুন কবির ও মামলা সূত্রে জানাগেছে, রবিবার সন্ধ্যার পর উপজেলার রতনদী তালতলী ইউনিয়নের কাটাখালী বাজার এলাকা থেকে ওই এলাকার শহীদ হাওলাদারের ছেলে মো. জাহিদকে গলাচিপা পৌর এলাকার ৭-৮ জন যুবক অপহরণের সময় স্থানীয় লোকজন ধাওয়া করে অপহৃত যুবক জাহিদকে উদ্ধার করে এবং অপহরণকারীরা পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন অপহরণকারী গলাচিপা পৌর এলাকার রায়হান হাওলাদার (২৫), রুবেল সিকদার (২২), সুজন খন্দকার (২১) বেল্লালকে (৩০) ধাওয়া করে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ খবর পেয়ে গলাচিপা থানার এসআই মো. সহিদুল ইসলাম অপহরণকারীদের আটক করে থানায় নিয়ে আসার সময় পথে রতনদীতালতলী ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি মোঃ রিয়াজ খলিফার নেত্রীত্বে ২০-২২ জন সংঘবব্ধ হয়ে আসামীকে  থানায় নিতে বাধা প্রয়োগ করে এবং  পুলিশের গাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে রাস্তায় গাছের গুড়ি ফেলে পথ আটকে দেয়। পরে খবর পেয়ে গলাচিপা থানার অপর একটি পুলিশের টিম ঘটনাস্থল থেকে আটকে পড়া পুলিশ উদ্ধার করে। এসয় ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে রিয়াজ খলিফা, খোকন, শারিয়ার ও আবদুর রশিদকে আটক করা হয়।এবিষয়ে গলাচিপা থানার অফিসার
ইনচার্জ (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম প্রতিবেদককে বলেন, গলাচিপার রতনদী তালতলী ইউনিয়নের কাটাখালী এলাকায় অপহরণের আসামী গ্রেপ্তারকে কেন্দ্র করেপুলিশের ওপর হামলা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ৪ জনকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়ে হয়েছে এবং বাকিদের গ্রেফতার  অব্যাহত চলছে।

মন্তব্য

মন্তব্য