স্বামী -স্রীর মামলার জের ধরে সংঘর্ষ আহত ৩

মোঃ জহিরুল ইসলাম (পাশা):কুমিল্লার তিতাস উপজেলায় স্বামী-স্ত্রীর মামলার জের ধরে উভয় পরিবারের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় উভয়পক্ষের ৩ জন হত হয়েছে।
ঘটনাটি ঘটেছে আজ বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক ৯টায় উপজেলার দক্ষিন বলরামপুর গ্রামের ভূইয়া বাড়ির সামনে। আহতদেরকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে তিতাস স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা ও কুমিল্লা কলেজ মেডিকেল প্রেরণ করেছে। আহতরা হলো মোঃ বেদন মিয়া, মোঃজাহাঙ্গীর ও মোসাঃস্বপ্না আক্তার।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা যায়, ১২ বছর পূর্বে বলরামপুর গ্রামের আব্দুল আউয়ালের মেয়ে স্বপ্না আক্তারকে বিয়ে দেয় একই গ্রামের মৃত আব্দুল বাতেন মিয়ার ছেলে মোঃ নুর আলমের নিকট কিন্তু বিয়ের দুই মাস পরে জীবিকার তাগিদে মোঃ নুর আলম ডুবাই চলে যায় এরই মধ্যে সে আর দেশে আসেনি এবং স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দূরত্ব সৃষ্ট হলে শুরু হয় উভয় পরিবারের মধ্যে মনোমালিন্য বন্ধ করে দেয় স্ত্রীর বরণ পোষণ। এক পর্যায় স্বপ্না বরণ পোষণ না পেয়ে আদালতে মামলা করলে বিজ্ঞ আদালত মামলাটি দুই বছর পরিচালনা করে নগদ ৩০ হাজার টাকা আদায় এবং স্বামী নুরআলম বিদেশ থেকে দেশে না আসা পর্যন্ত প্রতিমাসে স্ত্রী স্বপ্নাকে ৩ হাজার টাকা করে বরণ পোষণ বাবদ দিবে বলে রায় প্রদান করেন। এই রায়ের জের ধরেই উভয়ের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

অপরদিকে আহত বেদনের চাচা ছাত্তার বলেন, বেদন সকালে দোকান থেকে চা খেয়ে আসার পথে পরিকল্পিতভাবে হামলা করে এলোপাতারি কুপিয়ে গুরতর আহত করে স্বপ্নার লোকজন। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য

মন্তব্য