ঢাকা অফিসার্স নির্বাচনে সাধারন সম্পাদক মেজবাহ উদ্দিন ও কোষাধ্যক্ষ জাহাঙ্গীর আলম

– মোঃ বাদশাহ আলমগীর:
প্রায় এক হাজার ভোটের ব্যবধানে অফিসার্স ক্লাবের (ঢাকা) সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) মেজবাহ উদ্দিন। শুক্রবার রাতে নির্বাচন শেষে শনিবার ভোরে নির্বাচন কমিশন তাকে ২০২০ ও ২০২১ মেয়াদে অফিসার্স ক্লাবের নির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে বিজয়ী ঘোঘণা করে। জনাব মেজবাহ উদ্দিন বিগত কমিটির কোষাধ্যক্ষ হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।
প্রসঙ্গত, ২০২০ ও ২০২১ মেয়াদের নির্বাহী কমিটির দ্বিবার্ষিক নির্বাচনে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত অফিসার্স ক্লাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। মোট ২৩টি পদের মধ্যে ২২টি পদে সরাসরি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণ সম্পাদক পদে একটি, ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনটি, কোষাধ্যক্ষ পদে একটি, যুগ্ম সম্পাদক পদে তিনটি এবং চৌদ্দটি সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিব পদাধিকার বলে নির্বাহী কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ৫৪৮৪ তাদের মধ্যে ৪২৩৫ জন সদস্য ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। ভোর ৫টায় সহস্রাধিক ক্লাব সদস্যের উপস্থিতিতে নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান ফলাফল ঘোষনা করেন।
সাধারণ সম্পাদক পদে অতিরিক্ত সচিব মেজবাহ উদ্দিন ২৫৯০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব ও গত দুই মেয়াদে সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালনকারী মোঃ ইব্রাহীম হোসেন খান। তিনি তৃতীয় বারের মত সাধারন সম্পাদক পদে নির্বাচন করে ১৬৪৫ ভোট পরাজিত হন। তাদের দুজনের ভোটের ব্যবধান ৯৪৫ । ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন সাবেব সচিব কেএম মোজাম্মেল হক (প্রাপ্ত ভোট ২০১৫ ভোট), সাবেক অতিরিক্ত সচিব মো. আনছার আলী খান (প্রাপ্ত ভোট ২০১১) এবং সাবেক যুগ্ম সচিব এম খালিদ মাহমুদ (প্রাপ্ত ভোট ১৭৭২)।
কোষাধ্যক্ষ পদে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. জাহাঙ্গীর আলম ১৮৫৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী একই মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব ড. মো. হারুন-অর-রশিদ বিশ্বাস পেয়েছেন ১৬০০ ভোট। যুগ্ম সম্পাদক পদে মুস্তাকীম বিল্লাহ ফারুকী ৩৫০৯ ভোট, প্রফেসর ড. ফেরদৌসী খান ৩০৬২ এবং রাজউকের সদস্য (পরিকল্পনা) অতিরিক্ত সচিব মো. আজহারুল ইসলাম খান ৩০৫১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন।
এছাড়া সদস্য পদে নির্বাচিত হয়েছেন অধ্যাপক ডা. মনিলাল আইচ লিটু ২৪৪০, ডা. মো. আমিনুল ইসলাম ২১৭৩, তানিয়া খান ২১৭০, মুহাম্মদ সাকিব সাদাকাত ২১৩২, মো. দেলোয়ার হোসেন ২০৯৬, মো. আলমগীর হোসেন ২০৯১, প্রফেসর আশরাফুন নেসা রোজি ২০৮৯, সুরাইয়া পারভীন শেলী ২০৬০, মো. আখতারুজ্জামান ২০৩৩, এমএ মাজিদ ২০২৫, জসীাম উদ্দীন হায়দার ২০২১, রথীন্দ্রনাথ দত্ত ১৯৪৫, স্থপতি মীর মনজুরুর রহমান ১৯৩৭ এবং ড. মো. জাকেরুল আবেদীন (আপেল) ১৯২৩ ভোট পেয়েছেন।

মন্তব্য

মন্তব্য