কলাপাড়ায় শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় আধুনিক ওয়াশব্লক

মো: শহিদুল ইসলাম, কলাপাড়া: শিশু শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা, স্বাস্থ্য সম্মত পায়খানা ব্যবহার, হাত ধৌতকরনসহ নিরাপদ পানির ব্যবহার নিশ্চিত করতে পটুয়াখালীর কলাপাড়ার ১২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে র্নিমান করা হয়েছে আধুনিক ওয়াশব্লক। সোমবার সকাল দশটায় এসব ওয়াশ বøকের উদ্ভোধন করেন এফএইট’র কান্ট্রি ডিরেক্টর সমরেশ নায়েক। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মনিরুজ্জামান খান, মহিপুর কো-অপারেটিভ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুস সালাম, এফএইচ এসোসিয়েশনেরে প্রোগ্রাম ডিরেক্টর মিজানুর রহমান, সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার রিতা বড়–য়া, সিনিয়র মনিটরিং এন্ড ইভালুয়েশন রিজোনাল ম্যানেজার এএইটএম কামরুজ্জামান, প্রোগ্রাম ম্যানেজার গৌতম দাস প্রমুখ।
এফএইচ এসোসিয়েশনের কম্পেহেনসিভ ফ্যামিলি এন্ড কমিউনিটি ট্রান্সফরমেশন প্রকল্পের আওতায় কলাপাড়া উপজেলার মেনহাজপুর হাক্কানী নি¤œ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ফরিদগজ্ঞ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, চাকামইয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়, হাজীপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মহিপুর কো-অপারেটিভ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ফাতেমা হাই মাধ্যমিক বিদ্যালয়, শিশু পল্লী একাডেমী, তালতলীর নলবুনিয়া আগরপাড়া নি¤œ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কবিরাজপাড়া নি¤œ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, নয়াভাই জোরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বথিপাড়া নি¤œ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, নাসির উদ্দিন নি¤œ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এসব ওয়াশবøক র্নিমান করা হয়েছে।
রিজোনাল প্রোগ্রাম ম্যানেজার গৌতম দাস জানান, ৪৫ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত প্রতিটি ওয়াশবøক একই সময়ে দশ জন ছাত্র-ছাত্রী ব্যবহার করতে পারবে। ভেনটিলেটর, এডজাস্ট ফ্যানসহ এসব ওয়াষবøকে ছেলে-মেয়েদের জন্য আলাদা আলাদা টয়লেটের ব্যবস্থা রয়েছে। মেয়েদের টয়লেটে তাদের ব্যবহার্য উপকর পরিস্কার করার ব্যবস্থাসহ হাইজিন বক্স, সাবানদানি, কাপড় শুকানোর স্ট্যান্ড স্থাপন করা হয়েছে। নিরাপদ পানির পর্যাপ্ত ব্যবহারের জন্য ৫’শ লিটার ধারন ক্ষমতার পানির ট্যাংক স্থাপন করা হয়েছে।
বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সুমাইয়া, শাহনাজ, কবিতা জানায়, মাসের বিশেষ সময়ে নিরাপদ পরিবেশে পরিচ্ছন্ন হতে না পেরে অনেকরই বিদ্যালয়ে আসা হয়না। আধুনিক এ ওয়াশবøক র্নিমানের ফলে আমাদের দীর্ঘদিনের সমস্যার সমাধান হয়েছে।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মনিরুজ্জামান খান বলেন, প্রতিটি বিদ্যালয়ে ওয়াশব্লক র্নিমান বরা হলে শিক্ষার্থীরা দুপুরে টিফিনের পর হাত ধৌতকরনসহ বিভিন্ন সংক্রামন রোগ থেকে মুক্তি পাবে।

মন্তব্য

মন্তব্য