যুদ্ধাপরাধীদের মুক্তিদাবীকারী স্পেন আ.লীগের সভাপতি !সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ

কবির আল মাহমুদ, স্পেন :

‘সংকট আর বির্তক’ যেন পিছু ছাড়ছে না নব গঠিত স্পেন আওয়ামীলীগের। অভিযোগ উঠেছে দলের ত্যাগী, নির্যাতিত ও পোড় খাওয়া নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে অল ইউরোপ আওয়ামী লীগের সভাপতি এম নজরুল ইসলাম ‘অর্থের বিনিময়ে অনুগতদের’ দিয়ে স্পেন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) রাজধানী মাদ্রিদের একটি রেস্তোরাঁয় সর্ব ইউরোপ আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের অনৈতিক ও অসংগঠনিক কার্যকমের প্রতিবাদে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে স্পেন তৃণমূল আওয়ামী লীগের মনোনীত সভাপতি মো. বোরহান উদ্দিন বলেন, ঘোষিত কমিটি নিয়ে দলের কোন্দল তীব্র আকার ধারণ করেছে। ব্যক্তি বিশেষের ভাগাভাগির ‘পকেট’ কমিটি হয়েছে বলে অনেক সিনিয়র নেতাই এই কমিটি প্রত্যাখান করেছেন।

অল ইউরোপ আওয়ামী লীগের দুই নেতা, বিগত দিনে নির্যাতিত ও পোড় খাওয়া নেতাকর্মীদের কোনো মতামত না নিয়ে এই কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।
তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা অল ইউরোপ আওয়ামী লীগের শীর্ষ দুই নেতার বিরুদ্ধে ‘পকেট’ কমিটি দেয়ার অভিযোগ করে দলীয় সভা নেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে মাদ্রিদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে স্মারক লিপি প্রধান করেছেন বলে জানান সংবাদ সম্মেলনে।

তিনি আরও বলেন, জাতিসংঘ আয়োজিত বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন কপ-২৫ মাদ্রিদ-এ প্রিয় সংগঠন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যোগদান গত ১ ডিসেম্বর ৩ দিনের সফরে স্পেনে আসেন। দলীয় সভা নেত্রীর আগমন উপলক্ষে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে আওয়ামীলীগের বিভিন্ন দেশের শত শত নেতাকর্মী মাদ্রিদে এসে সমবেত হন। তাদের উদ্দেশ্য, মাদ্রিদে নাগরিক বা গণ সংবর্ধনা আয়োজনের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগ প্রধানের সান্নিধ্যে এসে স্পেন তথা ইউরোপে আওয়ামীলীগের কার্যক্রম ও ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনা ও মতামত ব্যক্ত করা।
কিন্তু তাদের তো সেই সুযোগ দেয়া হয় নাই, উল্টো নিরাপত্তার অজুহাত দেখিয়ে বাড়াবাড়ি রকমের নিরাপত্তা কর্মী রাখা হয় এবং হাতের ইশারা দিয়ে ২৫/৩০ জনের জামাত বিএনপির নেতাকর্মীদে ঢুকিয়ে ইউরোপীয় আওয়ামীলীগ, বিতর্কিত স্পেন আওয়ামীলীগের নতুন কমিটি ও দূতাবাস নিজেদের নির্বাচিত স্থানীয় অতিথিদের সমন্বয়ে খুবই সীমিত আকারে হোটেল লবিতে আওয়ামীলীগ প্রধানকে সংবর্ধনার আয়োজন করে।অথচ আওয়ামী লীগের অনেক ত্যাগী নেতা কর্মীদের হলে ঢুকতে দেওয়া হয়নি বলে তিনি অভিযোগ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- স্পেন তৃণমূল আওয়ামী লীগের মনোনীত সাধারন সম্পাদক এ কে এম সেলিম রেজা। তিনি বলেন, ইউরোপীয়ান আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ করতে এম নজরুল ইসলামকে সর্ব ইউরোপ আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তিনি তৃণমূলের মতামত অগ্রাহ্য করে ‘অর্থের বিনিময়ে পকেট কমিটি ঘোষণা করে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে আরও দ্বন্দ্ব বাড়িয়ে দিচ্ছেন’। যে লোক যুদ্ধাপরাধী সাঈদীর মুক্তি আন্দোলনে অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকে, তাকে কীভাবে আওয়ামী লীগ স্পেন শাখার সভাপতির পদ দেওয়া হয়? তিনি এমন প্রশ্ন রেখে এম নজরুল ইসলামকে সর্ব ইউরোপ আওয়ামী লীগের সভাপতির পদ থেকে প্রত্যাহারের জন্য দলীয় সভানেত্রীর কাছে অনুরোধ জানান। তিনি আরো বলেন, এক বিশেষ ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ করলে কমিটিতে স্থান পাওয়া সহজ হবে। কমিটিতে স্থান দেয়ার নাম করে আর্থিক অনিয়ম ও হচ্ছে বলে ও তিনি অভিযোগ করেন। আওয়ামী লীগ করেনা জামাত বিএনপির এমন অনেককে পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে অর্থের বিনিময়ে রাখা হবে। এসব বিষয় তদন্তের বিষয়ে তিনি জোর দাবী জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- স্পেন আওয়ামীলীগের স্পেন আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা আক্তার হোসেন আতা, ইসলাম উদ্দিন শেখ, সদ্য বিলুপ্ত স্পেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক শেখ আব্দুর রহমান, স্পেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জসিম উদ্দিন, স্পেন যুবলীগের আহবায়ক ইফতেখার আলম, স্পেন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ইসমাইল হোসেন রায়হান প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দ বলেন, স্পেন আওয়ামী লীগের মধ্যম সারির এক নেতা কমিটিতে স্থান দেয়ার কথা বলে একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।

এ দিকে ৪ ডিসেম্বর ইউরোপ আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান উপদেষ্টা এম এ গনি একটি ভিডিও বার্তায় ইউরোপ আওয়ামীলীগের অন্যায় ও অসঙ্গত কার্যকলাপের নিন্দা জ্ঞাপন করেন।

মন্তব্য

মন্তব্য