সন্দ্বীপ মগধরা চেয়ারম্যান কর্তৃক অবৈধভাবে প্রবাসীর গাছ কেটে নেয়ার অভিযোগ

রিয়াদুল মামুন (সোহাগ), সন্দ্বীপ প্রতিনিধি: সন্দ্বীপ রহমতপুর ৯ নং ওয়ার্ডের হাবীব হাজী উল্যাহ সাহেবের নতুন বাড়ীর মৃত সফিক এর ছেলে আমিরাত প্রবাসী রুবেল হোসেনের একটি বাগান বাড়ি রয়েছে মগধরা ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডে।গত ১০ অক্টোবর উক্ত বাগান বাড়ির মেহগনি, করই ও বেলজিয়াম গাছ সহ প্রায় এক লক্ষ টাকা মূল্যের ১৪ টা গাছ কেটে নিয়ে গেছে মর্মে অভিযোগ উঠেছে খোদ চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন ও ইউপি সদস্য রবি মেম্বার সহ সাইফুল ইসলাম সানুর বিরুদ্ধে। উক্ত বিষয়ে চট্টগ্রাম পুলিশ সুপার প্রবাসী হেল্ফ সহায়তা ডেক্স বরাবর গত ১১ অক্টোবর একটি অভিযোগ পত্র ই-মেইলে দাখিল করেছেন প্রবাসী রুবেল হোসেন। তার বিপরীতে সন্দ্বীপ থানার পুলিশ ইনচার্জ বরাবরে উক্ত অভিযোগ খতিয়ে দেখে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার একটি চিঠি ইস্যু করলেও সেটার কোন অগ্রগতি নেই। এ বিষয়ে প্রবাসী রুবেল হোসেন জানান, আমাদের নিজেদের জায়গার গাছ কেটে নেয়ার কোন রকম বৈধতা তাদের না থাকলেও তারা ক্ষমতার দাপটে সব গাছ কেটে নিয়ে গেছে।আমার মা তাদেরকে বাধা দিলে তাকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে এবং বাড়ি ঘর জ্বালিয়ে দেয়ার হুমকি দেয়।বর্তমানে রুবেল হোসেনের মা এবং তার পরিবার নিরাপত্তা হীনতায় দিন কাটাচ্ছেন বলে রুবেল হোসেন এ প্রতিবেদককে জানান। এবং রুবেল এ বিষয়ে চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, যে কোন গাছ একক সিদ্ধান্তে কাটার ক্ষমতা রাখি। এখন অভিযোগের এক মাস কেটে গেলেও তার কোন বিচার না পেয়ে সন্দ্বীপ থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ শরিফুল আলমের শরনাপন্ন হলে তিনি এখনো বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি বলে পাশ কেটে জান এবং এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা গ্রহন না করে গড়িমসি করছে বলে জানান ভুক্তভোগী রুবেল।

মন্তব্য

মন্তব্য