ওসি তদন্ত মহব্বত কবীরের মাদক ও অপরাধ দমনে বিস্ময়কর সাফল্য


ফজলুল হক, স্পেশাল প্রতিনিধি :
সরিষাবাড়ী জনগণের আস্থা ও ভালবাসার প্রতিদান ওসি তদন্ত মহব্বত কবীর অফিসার ইনচার্জ হিসেবে যোগদানের পর মাদক উদ্ধার ও অপরাধ দমনে বিস্ময় সৃষ্টি করেছেন এবং জনগণ পেয়েছে স্বস্তির নি:শ্বাস। মহব্বত আলী আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রনে রাখতে অব্যাহত প্রচেষ্টা রাখায় অনেক প্রশংসা কুড়িয়েছেন এবং জনগণ সুফল ভোগ করছে। সুযোগ্য পুলিশ অফিসার ওসি সাজেদুর রহমান সরিষাবাড়ী থানা পুলিশ সুপার জামালপুর এডিশনাল ডিআইজি ড. আক্কাস উদ্দিন ভূইয়া প্রশংসা করে বলেন অল্প সময়ের মধ্যে অফিসার ইনচার্জ মহব্বত কবীর জনগণের কাছে প্রশংসনীয় হতে পেরে পুলিশ প্রশাসনের ভাবমূর্তি উজ্জল করেছে। সাংবাদিকগণ জিজ্ঞাসা করলে মহব্বত কবীর সাহেব উত্তর দেন যে ওসি সাজেদুর রহমান স্যারের দিক নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করে যাচ্ছি। যাতে জনগণ তার সুফল ভোগ করতে পারে। পুলিশ জনগণের বন্ধু এটাই জানি। জনগণ বিশ্বাস রাখে অফিসার ইনচার্জ তারাকান্দা তদন্ত কেন্দ্রের আওতায় ইউনিয়নবাসী বলেছেন মহব্বত কবীর সাহেব যোগদানের পর মাদক ব্যবসায়ী, দুস্কৃতিকারী লোক, চোরাকারবারী দেরকে শক্তি হাতে দমন করতে পেরেছে। জনগণ বলে এক সময় তারাকান্দি এলাকা ছিল খুব সন্ত্রাসী ও জুয়া খেলার প্রভাব ও মাদক ব্যবসায়ীদের হাত খুব শক্তিশালী ছিল। দেশনেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাদক মুক্ত করার জন্য কঠোর হুশিয়ারী দেন তার ধারাবাহিকতা রেখে সঠিক ভাবে দায়িত্ব পালন করতে ওসি সাজেদুর রহমান সাহেক করা নির্দেশ দেন। অফিসার ইনচার্জ মহব্বত কবীর সাহেব নির্দেশ মোতাবেক চৌকস পুলিশ অফিসার রাতদিন কঠোর পরিশ্রমের মধ্য দিয়ে অফিসার ইনচার্জ মহব্বত কবীর সাহেব সেই শক্তিশালী মাদক ব্যবসায়ী ধুলিসাৎ হয়ে গেছে তাদের আইনের আওতায় আনা হয়েছে। এলাকাবাসী বলেছেন এক সময় তারাকান্দি এলাকা ছিল মাদক চোরাকারবারী যুক্ত। অফিসার ইনচার্জ মহব্বত কবীর যোগদানের পর মাদকমুক্ত এলাকা পরিণত হতে যাচ্ছে। তার অভিযানের দক্ষতা প্রসংসিত।

মন্তব্য

মন্তব্য