গলাচিপায় ঘূর্নীঝড় ” বুলবুল” এর কারণে শুকনো খাবার ও সাইক্লন সেল্টার সহ প্রস্তুত দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি

মু. জিল্লুর রহমান জুয়েল, পটুয়াখালী //
ঘূর্নীঝড় ” বুলবুল”এর কারণে ৮ ও ৯ অক্টোবর থেকেই মাঝারী থেকে ভারী বৃষ্টপাত হচ্ছে, যা দমকা ও ঝড় হাওয়ার মতো। ঘূর্নী ঝড় ” বুলবুল” এর মোকাবেলায় প্রস্তুত পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলা দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি। দূর্যোগ মোকাবেলায় সিপিপি’র মাঠ পর্যায় কর্মীরা মাইকিং করার মাধ্যমে সতর্কতার পাশাপাশি সকল জন সাধারণকে নিরাপদে আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমটির সদস্য সচিব ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ দেলোয়ার হোসেন।

৯ অক্টোবর শনিবার মুঠোফোনে তিনি সর্বশেষ জানান, বৃহস্পতিবা থেকেই থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছে, এটা আরো ঘোনভীত হয়ে ঝড় হাওয়া আকারে বৃদ্ধি পেয়েছে। এ প্রক্ষিতে বাংলাদেশ সরকারের ত্রান ও দূর্যোগ মন্ত্রনালয়ের নির্দেশে ঘূর্নীঝড় ” বুলবুল” এর মোকাবেলায় সর্বক্ষণ সিপিপি কর্মীরা উপকূলীয় এলাকাজুড়ে খোজখবর নিচ্ছেন, পাশাপাশি গলাচিপা উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যাদের শতর্ক থাকার নির্দেশ সহ মোট ১০৫টি সাইক্নোন সেল্টারের দ্বায়ীত্ব প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছ। পাশা পাশি উপজেলার চরাঞ্চল সহ সকল সাইক্লন সেল্টারে যারা আশ্রায় নিয়েছেন, সকলের জন্য শুকনো খাবারের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রয়েছে।

এর মধ্যে গলাচিপায় ৭ মাটির কিল্লা প্রস্তুত রাখা হয়েছে উপজেলার মৎস্য কর্মকর্তা ও মৎস্য সমিতির মাধ্যমে গভীর সমুদ্রের জেলেদের উপকূলীয় এলাকায় এসে নিরাপদ আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

এদিকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে প্রতিটি ইউনিয়নে চার সদস্যের একটি করে ও পাঁচটি মোবাইল মেডিকে:ল টিম এবং কনট্রোল রুম প্রস্তুত রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে উপজেলা সাস্থ্য কর্মকর্তা মোঃ মনিরুল ইসলাম।

দূর্যোগ মোকাবেলা প্রস্তুতিতে ও যে কোন বিষয়ে সর্বক্ষণ গলাচিপা উপজেলার দূর্যোগ মোকাবেলায় সরকারী সকল নির্দেশ অনুযায়ী প্রস্তুত রয়েছেন বলে জানিছেন দূর্যোগ ব্যাবস্থাপনা কমিটির সদস্য সচিব ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্ত মোঃদ দেলোয়ার হোসেন।

মন্তব্য

মন্তব্য