‘বাংলাদেশ ফ্রি ট্রেড ইউনিয়ন কংগ্রেসের একাদশ জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত ও ‘বিএফটিইউসি অ্যাওয়ার্ড-২০১৯ প্রদান’

দেশের শ্রমজীবী মানুষের কন্ঠস্বর ‘বাংলাদেশ ফ্রি ট্রেড ইউনিয়ন কংগ্রেস-বিএফটিইউসি’র একাদশ জাতীয় সম্মেলন ৮ নভেম্বর ২০১৯ ঢাকার আগারগাঁও-এ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে জাতীয় শ্রমিক নেতৃবৃন্দ ও ইউনিয়নভুক্ত শ্রমজীবী মানুষদের পাশাপাশি ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড ইউনিয়ন কনফেডারেশন(আইটিইউসি),সাউথ এশিয়ান রিজিওনাল ট্রেড ইউনিয়ন কাউন্সিলের প্রতিনিধিগণ অংশ নেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে বিএফটিইউসির কার্যক্রম নিয়ে একটি প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শিত হয়। এবারের কংগ্রেসের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছিল’ বিল্ডিং ওয়ার্কার্স পাওয়ার উইথ ট্রান্সফরমেটিভ ন্যাশনাল ট্রেড ইউনিয়ন মুভমেন্ট’।
শুভেচ্ছা বক্তব্যে সংগঠনের সেক্রেটারি জেনারেল এ. আর. চৌধুরী রিপন সবাইকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, ‘বাংলাদেশের ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলন এক কঠিন সময় অতিক্রম করছে’। তিনি শ্রমিক সংগঠনগুলোর মধ্যে ঐক্য ও সংহতির আহ্বান জানান। তিনি বলেন, শ্রম অধিকার লঙ্ঘন ও ‘আনফেয়ার লেবার প্র্যাকটিসের মাত্রা ক্রমান্বয়ে বেড়েই চলেছে, যা মোটেও কাম্য নয়। সমাজে ধনী ও শ্রমজীবী মানুষের মধ্যে বৈষম্য দিন দিন মাত্রা ছাড়িয়ে যাচ্ছে এ বৈষম্য রোধে তিনি মুক্ত স্বাধীন ট্রেড ইউনিয়ন চর্চার গুরুত্ব তুলে ধরেন।


অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আইইউটিসির-এশিয়া প্যাসিফিক রিজিওনের জেনারেল সেক্রেটারি শোয়ায়া ইয়োশিদা তার বক্তব্যে বাংলাদেশের শ্রম পরিস্থিতি এবং ট্রেড ইউনিয়ন চর্চার গুরুত্ব তুলে ধরেন। সলিডার সুইসের রিজিওনাল রিপ্রেজেন্টেটিভ সঞ্জিব পান্ডিতা বলেন, গ্লোবাল সাপ্লাই চেইনে বাংলাদেশের পোশাক শিল্প শ্রমিকদের অবদান অনস্বীকার্য । অথচ এ শিল্পের শ্রমিকদের এখনো ন্যায্যমূল্য প্রতিষ্ঠা হয় নি। অথচ তাদের উৎপাদিত পণ্য খুব চড়া দামে বিক্রি করছে ব্র্যান্ডগুলো’। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, সাউথ এশিয়ান রিজিওনাল ট্রেড ইউনিয়ন কাউন্সিলের জেনারেল সেক্রেটারি মি লাক্সমান বাসনেট, স্কপের যুগ্ম আহ্বায়ক কামরুল আহসান ও ওশি ফাউন্ডেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ব্যারিষ্টার সৈয়দ সাইদুল হক সুমন।
এবারের কংগ্রেসে প্রথমবারের মতো ট্রেড ইউনিয়ন চর্চা ও শ্রমিক স্বার্থ বিষয়ে অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ তিনটি ক্যাটাগরিতে বিএফটিইউসি অ্যাওয়ার্ড-২০১৯ প্রদান করা হয়। চা শিল্প শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নে অবদান রাখায় বেস্ট ইউনিয়ন অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয় ‘বাংলাদেশ টি এস্টেস্ট অ্যাসোশিয়েশনকে। বেস্ট ইউনিয়ন অর্গানাইজার অ্যাওয়ার্ড পান ট্রেড ইউনিয়ন কর্মী সোনিয়া আক্তার। হেলথ অ্যান্ড সেইফটি অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয় তাজরিন ফ্যাশন ভিক্টিম রাইটস নেটওয়ার্কের জরিনা খাতুন। সম্মেলনের দ্বিতীয় পর্বে সাংগঠনিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়। এবং দ্বি-বার্ষিক কর্ম পরিকল্পনা পর্যালোচনা ও অনুমোদন শেষে নির্বাচন কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির প্রেসিডেন্ট আব্দুল মুকিত খান।

মন্তব্য

মন্তব্য