নারীর ক্ষমতায়নে মিছিলে ও সম্মেলনে নারীরা দলবেঁধে আসে মেহের আফরোজ চুমকি এমপি


মো. ইব্রাহীম খন্দকার //

এলাকায় যত বেশি উন্নয়ন হয়, এলাকাবাসী তত বেশি উন্নয়ন চায়। বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশকে যা দিয়েছে, তা যদি জনগণ মনে রাখে, তবে কখনোও জনগণ বিএনপিকে ভোট দিবে না। প্রধানমন্ত্রী দেশকে ভালোবাসে দেশের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। দেশে নারীর ক্ষমতায়নে বিশ্বের কাছে প্রশংসিত হয়েছে। নারীর ক্ষমতায়নে মিছিলে ও সম্মেলনে নারীরা দলবেঁধে আসে। এই দৃশ্য বিগত সরকারের আমলে চোখ পড়েনি। নৌকা মার্কা নিয়ে যারা জনপ্রতিনিধি হয়েছে, তারা যদি দলের বিরোধী কোনো কর্মকান্ড করে, তাদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। সঠিক নেতৃত্বের লোকই জনপ্রতিনিধি হবেন। সবায়কে নিয়ে রাজনীতি করতে চাই। যেই সব নেতাকর্মীরা ভুল-ভ্রান্তি করে, তারা যদি তাদের ভুল বুঝতে পারে। তাদের ক্ষমা করে দলে রাখা হবে। কিন্তু যারা বারবার ভুল করবে তাদের কোনো ক্ষমা করা হবে না। প্রত্যেকের মনে নারীর প্রতি সুন্দর ব্যবহারের মানসিকতা থাকতে হবে। নেতাকর্মীদের সকল ধর্মের লোকজনের সাথে সুন্দর সম্পর্ক গড়ে চলতে হবে।
শুক্রবার বিকেলে তুমলিয়া বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে তুমলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি বক্তৃতায় মহিলা ও শিশু বিষয়ক সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মেহের আফরোজ চুমকি এমপি এসব কথা বলেন।
তুমলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মো. বজলুর রহমানের পরিচালনায় সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন।
সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল গণি ভূইয়া, কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক এবিএম আমজাদ হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট আশরাফী মেহেদী হাসান, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মো. মোয়াজ্জেম হোসেন পলাশ ও আব বকর চৌধুরী, তুমলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু বকর বাক্কু, উপজেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক বদরুজ্জামান মোমেন সরকার, জেলা পরিষদের সদস্য তাসলিমা রহমান লাভলী, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী জুয়েনা আহমেদ ও উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক কাজী হারুন-অর-রশিদ টিপু প্রমুখ।
এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. শরীফুল ইসলাম তোরণ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী বশির আহমেদ ও মো. দেলোয়ার হোসেন দুলাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মো. শরীফ হোসেন খান কনকসহ দলীয় অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী।
ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে তুমলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন ও সাধারন সম্পাদক মো. বজলুর রহমানের প্রতিদ্ব›িদ্ব কোনো প্রার্র্থী না থাকায় তাদের দুইজনকে পুনর্নিবাচিত করা হয়।

মন্তব্য

মন্তব্য