বাবাকে সুস্থ করতে সমাজের বিত্তবানদের সাহায্য কামনা করেছেন মেয়ে উর্মি।

মো: জহিরুল ইসলাম (পাশা) // কুমিল্লা তিতাস উপজেলা সাবৃদ্ধি গ্রামের হিন্দু সম্প্রাদয়ের মধ্যবিত্ত পরিবারে বসবাস নারায়ন আচার্য্যের পরিবারের ভরন পোষন চালিয়ে সন্তানদের লেখাপড়ার খরচ যোগাতে হিমসিম খাচ্ছে পরিবারে কর্তা ভাগ্যের নির্মম পরিহাস দীর্ঘ দিন যাবৎ লিভার সিরোসিসে ভোগছেন নারায়ন আচার্য্য বাবার কস্ট সইতে না পেরে দারিদ্রতার কারনে দেশের বাহিরে নিয়ে উন্নত চিকিস্যা না দিতে পেরে মেয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের ৮ম ব্যাচের ছাত্রী উর্মি আচার্য্য বাবাকে ঢাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবর মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় লিভার ট্রান্সপ্লান্টের সিদ্ধান্ত গ্রহন করে এমন কি দরকার হলে মেয়ের লিভারের কিছু অংশ বাবাকে দান করবে তবুও বাবাকে সুস্থ দেখতে চান মেয়ে কিন্তু ট্রান্সপ্লান্ট করার পৃর্বে পাঁচ লক্ষ্য টাকা জমা করতে হবে এবং ট্রান্সপ্লান্টের পরে দুই বছর প্রতি মাসে প্রায়( ২০) হাজার টাকা ঔষুধ দিতে হবে সকল কিছু মিলিয়ে বাবাকে সুস্থ্য করতে প্রায় (১৫ – ১৬)পনের থেকে ষোল লক্ষ টাকা লাগবে এ টাকা নারায়ন আর্যচ্যের পরিবারের পক্ষে জোগাড় করা অসম্ভব তাই সমাজের বৃত্তবানদের নিকট অসুস্থ্য বাবার জন্য সাহায্য চেয়েছেন মেধাবী ছাত্রী মেয়ে উর্মিলা যার যার সামর্থ অনুযায়ী একটি অসহায় পরিবারের দিকে সু দৃস্টি কামনা করেছেন মেয়ে।

মন্তব্য

মন্তব্য