শ্রীপুরে পুলিশ সদস্যকে মারধরের অভিযোগে ইউপি সদস্য শ্রীঘরে

সাইফুল আলম সুমন,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
গাজীপুরের শ্রীপুরে সরকারি কাজে বাঁধা প্রদান করায় দুই পুলিশ সদস্যকে মারধরের অভিযোগে এক ইউপি সদস্যসহ দু-জন কে আটক করেছে শ্রীপুর থানা পুলিশ। আটককৃতরা হলো মাওনা ইউনিয়নের কপাটিয়া পাড়া গ্রামের মৃত ইন্তাজ আলীর ছেলে ৮নং ওর্য়াড ইউপি সদস্য মতিউর রহমান (৫০)। সে স্থানীয় ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড সদস্য। অপরজন হুমায়ূন কবীর (৩২) চকপাড়া গ্রামের শমর আলীর ছেলে। বুধবার রাতে উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের চকপাড়া মেডিকেল মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

আহত দুই পুলিশ সদস্যকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। আহত পুলিশ সদস্য কনেস্টবল নাঈমুর রহমান ও সবুজ মিয়া। তারা শ্রীপুর মডেল থানার মাওনা চকপাড়া অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পে কর্মরত। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে মাওনা চকপাড়া অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিনহাজ উদ্দিন বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দুই পুলিশ সদস্য সাদা পোশাকে গ্রেপ্তারী পরোয়ানাভুক্ত আসামীদের খোঁজ নেয়ার জন্য চকপাড়া মেডিকেল মোড়ে মজিবরের পশু খাদ্যের দোকানে যায়। কিন্তু যার বিরোদ্ধে গ্রেপ্তারী সেই ব্যক্তি ইউপি সদস্যের সমর্থক হওয়ায় ইউপি সদস্য মতিউর রহমানের সাথে কথা কাটাকাটি শুরু হয় পুলিশ সদস্যদের। এক পর্যায়ে সাদা পোষাকে পুলিশ সদস্যদেরকে ভুয়া বলে মারধর শুরু করে। পরে খবর পেয়ে মাওনা চকপাড়া অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ মিনহাজ উদ্দিন গিয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে। এ সময় সরকারি কাজে বাঁধা প্রদান করার অপরাধে ঘটনাস্থল থেকে দু-জনকে আটক করে।

শ্রীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী বলেন, দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদেরকে মারধর করায় ইউপি সদস্যসহ দু-জনকে গ্রেপ্তার করে বৃহস্প্রতিবার দুপুরে গাজীপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য

মন্তব্য