উত্তরবঙ্গের মানুষর আর মঙ্গা শব্দ শুনতে হবে না …. প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা


সাইফুর রহমান শামীম, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :

কুড়িগ্রাম থেকে ঢাকা আন্তনগর কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আর যেন উওরবঙ্গবাসীকে মঙ্গা শব্দটি শুনতে না হয়। সে জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি । এখন মঙ্গা নেই । অভাব নেই । মানুষের যোগাযোগের সাথে সাথে অর্থনৈতিক উন্নয়ন হচ্ছে । কুড়িগ্রামবাসীর উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, কুড়িগ্রামকে আমি মজা করে বলতাম কুইড়্যা গ্রাম। এখন আর কুইড়্যা গ্রাম নেই।অনেক উন্নত হয়েছে । ধরলাসেতু, তিস্তাসেতু যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নে রেল ও সড়কপথে উন্নয়ন হয়েছে । কুড়িগ্রাম থেকে মঙ্গাদুরীকরনে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে । কুড়িগ্রাম থেকে প্রথম কৃষকদের ১০ টাকাতে ব্যাংক হিসাব চালু ও ন্যাশনাল সার্ভিস চালু করা হয়েছে। বক্তব্য শেষে হাতে সবুজ পতাকা উচিয়ে বাশি ফুকে আনুষ্ঠানিকভাবে আন্তনগর কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেসের উদ্বোধন বুধবার গণ ভবন থেকে সকাল সাড়ে ১১টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কথা বলে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ট্রেনের উদ্বোধন ঘোষনা করেন । এসময় প্রাথমিক ও গনশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন, সংসদ সদস্য আসলাম হোসেন সওদাগড়, সংসদ সদস্য পনির উদ্দিন আহমেদ, সংসদ সদস্য এম এ মতিন, রেলওয়ের মহাপরিচালক মোঃ শামসুজ্জামান, পশ্চিমা ল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক মোঃ হারুন অর রশিদ, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার মোঃ তরিকুল ইসলাম, রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য, জেলা প্রশাসক মোছাঃ সুলতানা পারভীন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ জাফর আলী, পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
উদ্বোধনের পর রেলমন্ত্রী অতিথীদের নিয়ে কুড়িগ্রাম থেকে পার্বতীপুর চলে যায়।
নতুন আন্তনগর ট্রেনটি সপ্তাহে ৬দিন সকাল ৭টা ২০ মিনিটে কুড়িগ্রাম যথারীতি ঢাকার উদ্দেশ্যে কুড়িগ্রাম ছেড়ে যাবে। রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে ঢাকা থেকে কুড়িগ্রামে ফিরবে। এতে মোট আসন রয়েছে প্রায় ৬ শতাধিক। কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনটি কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে যাত্রাবিরতি করবে যথাক্রমে রংপুর, বদরগঞ্জ, পার্বতীপুর, জয়পুরহাট, সান্তাহার, মাধবনগর ঢাকা বিমান বন্দর স্টেশনে যাত্রা বিরতি শেষে কমলাপুর রেল স্টেশনে পৌছবে। এ ট্রেনটি চালুর ফলে কুড়িগ্রামবাসী স্বাধীনতার দীর্ঘ ৪৮ বছর পর সরাসরি ট্রেনে ঢাকা যাওয়ার সুযোগ পেলো।

মন্তব্য

মন্তব্য