পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় অগ্নিকাণ্ডে সর্বস্ব হারালো এক ব্যবসায়ী।

 

মোঃ শহিদুল ইসলাম,পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধি //

পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার চাকামইয়া ইউনিয়নের বেত মোর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে বুধবার গভীর রাতে অগ্নিকান্ডে সর্বস্ব হারালো এক মুদি ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী মো. হাবিবুর রহমান।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা যুবলীগের পক্ষে অ্যাড. সাইদুর রহমান চাকামইয়া ইউনিয়নের বেতমোর এলাকায় গিয়ে প্রাথমিক সহায়তা হিসেবে ওই ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী মোঃ হাবিবুর রহমানের হাতে নগদ ১০ হাজার টাকা তুলে দেন।

মোঃ হাবিবুর রহমানের চারটি কন্যা সন্তান ছাড়া কোন ছেলে সন্তান নেই। তার সংসারের উপরজোন হিসেবে এই দোকানের ব্যবসা ছাড়া আর কোন পথনেই তার নতুন করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দাঁড় করাবার মত অর্থও নেই।
বুধবার গভীর রাতে উপজেলার চাকামইয়া ইউনিয়নের বেতমোর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যলয়ের সামনে মো. হাবিবুর রহমান শানুর (৪৫) দীর্ঘ বছরের মুদি ব্যবসা পরিচালনার প্রতিষ্ঠানটি প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামালসহ সম্পূর্ন পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এরপর থেকে দিশেহারা হয়ে পড়েন তিনি। পুড়ে যাওয়া ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটির পোড়া ছাইয়ের মধ্যে বসে ওই মুদি ব্যবসায়ী অঝোরে কাঁদতে শুরু করেন।

ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান জানান, সারা জীবনের সঞ্চয় দিয়ে একটু একটু করে প্রতিষ্ঠানটি দাঁড় করিয়েছিলেন। আজ থেকে তিনি পথের ফকির হয়ে গেছেন বলে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

তিনি আরও জানান, একই স্থানে বহু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থাকলেও তার প্রতিষ্ঠানেই সব চেয়ে বেশি বেচা বিক্রি হয়ে আসছিল। এতে হিংসার কারনে যে কেউ উদ্দেশ্য প্রনোদিত ভাবে এ আগুন লাগিয়ে দিতে পারে বলে তার সন্দেহ। নাহলে আগুন লাগার কোন সম্ভাবনা তিনি দেখছেন না।

বেতমোর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী মো. আমানুর তালুকদার জানান, তিনি রাতে ঘুমিয়ে ছিলেন, হঠাৎ ঘুম ভেঙ্গে গেলে তিনি আগুনের লেলিহান শিখা দেখতে পেয়ে চিৎকার দিয়ে গ্রামবাসীকে জানান।

কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম জানান, আগুন কিভাবে লেগেছে আমরা খতিয়ে দেখছি। এতে কেউ দোষী হলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য

মন্তব্য