কুমিল্লা  তিতাস উপজেলায় জিবন হত্যার  বিচার চায়  সর্বস্তরের জনগণ। 

মো: জহিরুল ইসলাম (পাশা)
কুমিল্লা জেলার তিতাস উপজেলার কড়িকান্দি গ্রামের মৃত আঃ মতিন এর ছেলে মোঃ জিবন মিয়া (৬২)  কে গত শনিবার ৩ তারিখে রাতের আধারে একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে  কে বা কারা জিবন মিয়াকে মেরে গুরুতর জখম করে রেখে পালিয়ে যায়। সকালে তাহার স্বজনেরা আহত অবস্থায় তাহাকে প্রথমে তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে তাহার অবস্থা  গুরুতর দেখে কর্তবরত ডাক্তার  ঢাকা কলেজ মেডিকেলে রেফার করেন। ৫ দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লরে বৃহস্পতিবার বিকালে শেষ নিঃস্বাস ত্যাগ করেন।সে   ছিল এলাকার সবার পরিচিত শান্ত সভাবের লোক, তাহার স্বজনদের সাথে কথা বলে জানা যায় তাহার নিকট প্রায় ২ লক্ষ টাকার মত ছিল। সে এই টাকা মানুষের জমিতে বাড়িতে কাজ করে এই টাকা কামাই করে  সাথে রাখতো। এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে, এ সময় তাহার স্বজন জানান এই টাকার জন্যই আমাদের জিবন ভাইকে হত্যা করা হয়েছে।
তিতাস থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হইয়াছে অজ্ঞাত ব্যাক্তিদের উলেক্ষ করে। ৯ তারিখ শুক্রবার সকাল ১০টায় কড়িকান্দি স্টেশন থেকে একটি রালি ও প্রতিবাদ সভা বের করে  তিতাস প্রেসক্লাব এর সামনে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় তিতাস উপজেলা আওয়ামীগের সাধারন সম্পাদক ও কড়িকান্দি সদর ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান মোঃ মহসীন ভুইয়া বলেন জিবন হত্যাকারীরা অবশ্যই আইনের আওতায় আসবে এবং দৃষ্টান্তমুল শাস্তি আশা করেন। আরো উপস্থিত ছিলেন তিতাস উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক সাইফুল আলম মুরাদ সহ সকল স্কুল কলেজের শিক্ষক বৃন্দ জীবন মিয়ার এ অপ্রত্যাশিত মৃত্যুতে তিতাস প্রেস ক্লাবের ভার প্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক সহ সকল সাংবাদিকগন শোক প্রকাশ করেছে এবং মৃত্যুর রহস্য বের করতে পুলিশের পাশাপাশি সাংবাদিক রাও চেষ্টা চালিয়ে যাবে।

মন্তব্য

মন্তব্য