বঙ্গবন্ধু’র শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস চাঁপাইনবাবগঞ্জে চিত্রাংকন-রচনা-কবিতা পাঠ প্রতিযোগিতা

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি // স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে চিত্রাংকন, রচনা ও কবিতা পাঠ প্রতিযোগিতা হয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জে। বুধবার সকালে গ্রীনভিউ উচ্চ বিদ্যালয়ে এই প্রতিযোগিতাগুলো হয়। এসব প্রতিযোগিতার সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন বাংলাদেশ শিশু একাডেমী চাঁপাইনবাবগঞ্জ কার্যালয়ের শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা মো. শফিকুল আলম। এসব প্রতিযোগিতায় বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন নবাবগঞ্জ সরকারী কলেজের বাংলা বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. মাযহারুল ইসলাম তরু, একই কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মো. ফরহাদ হোসেন, অধ্যাপক আজিজুর রহমান, স্বাধীন সাহিত্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক তুফান, জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. রুহুল আমিন ও মো. সাইফুল ইসলাম, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ, মডেল স্কুলের সহকারী শিক্ষক মোসা. নাসিমা বেগম।
রচনা প্রতিযোগিতায় ‘ক’ গ্রæপে ৩য় থেকে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত (বিষয়-বঙ্গবন্ধুর ছেলে বেলা), ‘খ’ গ্রæপে ৬ষ্ঠ শ্রেণী থেকে ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত (বিষয়-বঙ্গবন্ধুর শিক্ষা জীবন) এবং ‘গ’ গ্রæপে ৯ম থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত (বিষয়-বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক ও কর্ম জীবন) ও ‘ঘ’ গ্রæপে একাদশ থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত (বিষয়-বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও বঙ্গবন্ধু)।
চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় ‘ক’ গ্রুপে শিশু থেকে ৩য় শ্রেণী পর্যন্ত (বিষয়-উন্মুক্ত), ‘খ’ গ্রæপে ৪র্থ শ্রেণী থেকে ৬ষ্ঠ শ্রেণী পর্যন্ত (বিষয়-বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ) এবং ‘গ’ গ্রæপে ৭ম থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত (বিষয়-জাতীয় শোক দিবস ১৫ আগষ্ট)
এছাড়া নির্ধারিত কবিতা পাঠ প্রতিযোগিতায় ‘ক’ গ্রæপে শিশু থেকে ৩য় শ্রেণী পর্যন্ত (বিষয়-প্রতিশোধ), ‘খ’ গ্রæপে ৪র্থ শ্রেণী থেকে ৬ষ্ঠ শ্রেণী পর্যন্ত (বিষয়-টুঙ্গিপাড়ার ছেলে) এবং ‘গ’ গ্রæপে ৭ম থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত (বিষয়-মুজিবের থাকা না থাকা)।
অন্যদিকে, আগামী ১৫ আগষ্ট সকালে বাংলাদেশ শিশু একাডেমীতে বাংলাদেশ শিশু একাডেমীর প্রকাশিত স্বাধীনতা ও বঙ্গবন্ধু বিষয়ক গ্রন্থের প্রদর্শণী ও বিক্রয় করা হবে। আগামী ১৫ আগষ্ট বিকেলে শিশু একাডেমী চাঁপাইনবাবগঞ্জ কার্যালয়ে আলোচনা, মিলাদ মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে শিশু একাডেমী চাঁপাইনবাবগঞ্জ কার্যালয়।
রচনা প্রতিযোগিতায় ৭৫ জন, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় ৯০ জন এবং কবিতা পাঠে অংশ নেয় ৬৪জন শিশু ও শিক্ষার্থী।

মন্তব্য

মন্তব্য