হোমনায় কালু বাঘা এক গরুর দাম ১২ লাখ

আইয়ুব আলী , হোমনা প্রতিনিধি
কুমিল্লা হোমনা পৌরসভাধীন শ্রীমদ্দি গ্রামের সাদিয়া ডেইরি ফার্ম এর মালিক মো.মাইনুদ্দিন । তার খামারে অনেকগুলো গরু রয়েছে । এটি এক ধরণের শংকর জাতের গরু । গরুটির রং কালো এবং দেখতে বাঘের মত বিধায় এর নাম দেয়া হয়েছে কালু বাঘা । এর দাম হাকঁছে প্রায় ১২ লাখ টাকা এবং যার ওজন প্রায় ২০-২৫ মণ। আসন্ন ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে দেশে কোরবানি উপলক্ষে গরু মোটাতাজাকরণ যেমন বেড়েছে, তেমনি আকর্ষনীয় বড় গরু নিয়ে মানুষের আগ্রহও বেড়েছে বেশী। আর এই আগ্রহের কারনেই এবার হাটে ওঠার আগেই বেশ কয়েকটি গরু নিয়ে শুরু হয়েছে আনাগোনা । এগুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে কালু বাঘা যেমন নাম তেমনি কুচকুচে কালো রং। কিছুক্ষণ পরপর গা মুছে দেওয়ায় তা যেন আরও চকচক করছে। মাঝেমধ্যে গায়ে হাত বুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে আর মাথার উপর বাইচারি ঘরে ঝুলছে কয়েকটি ফ্যান। যতেœর কোনো কমতি নেই কারন, দাম হাঁকা হচ্ছে “১২ লাখ টাকা নাম ওর কালু বাঘা”।
কালু বাঘার মালিক শ্রীমদ্দি গ্রামের গাংঙ্কুল পাড়ার মো. মাইনুদ্দিন বলেন, ১২ লাখ টাকা দাম হাঁকলেও ক্রেতাদের কথা শুনে মুখ তার মলিন হয়ে যায়। তিনি বলেন, কাস্টমাররা আমার খামারে এসে দাম কয় ৭-৮ লাখ টাকা । আমার চাহিদা ১২ লাখ টাকা । যদি ১০ লাখ টাকাও হলেও বিক্রি করে দিব। তা না হলে গরু নিয়ে বাজারে যাবো।
জানা যায়, শ্রীমদ্দি গ্রামের গাংঙ্কুল পাড়ায় তিতাস নদী সংলগ্ন সাদিয়া ডেইরি ফার্ম খামারে গেলেই কালু বাঘার দেখা মিলবে। কালু বাঘার সাথে আরও বেশ কয়েকটি গরু সেই ফার্মে রয়েছে। মাইনুদ্দিন দাবি করেন কালুসহ সব কয়টি গরুই তার গৃহপালিত (চাকের গরু) তিনি তার বাড়ির পার্শ্বে নিজ উদ্যোগে খামার করে এখানেই কালুর জন্ম ও লালন – পালন করেছেন। কালুর মায়ের নাম ছিল বাসন্তি, বাসন্তি কালুসহ ৪টি বাছুরের জন্ম দেয়। ৪টির মধ্যে কালু বাঘা সবচেয়ে শক্তিশালী ও দীর্ঘকায়। উচ্চতায় ৬ ফুট প্রস্থে (লম্বায়) ১০ ফুট ওজন ৫৫ মণ। কালু বাঘার দাম ১২ লাখ টাকা কেন চাইছেন উত্তরে মাইনুদ্দিন বলেন ৪-৫ বছর কালু বাঘার ফ্রিজিয়ানা জাতের এই গরুর জন্ম আমার এই খামারেই। ওরে পালতে-লালতে আমার খরচ হয়েছে ৬-৭ লাখ টাকারও বেশি। এর সঙ্গে অন্যান্য খরচ তো আছেই। এখন দেখি কত দাম ওঠে। হাট তো জমেনি তাছাড়া এখনও কালু বাঘাকে নিয়ে হাটে যাওয়া হয়নি।
সাদিয়া ডেইরি ফার্ম এর মালিক মো.মাইনুদ্দিন জানান, কালু বাঘা দেখতে গম্ভীর হলেও স্বভাব বেশ শান্ত। অন্য গরুকে এমনকি মানুষকে আঘাতও করে না । কালু বাঘাকে দেখতে হাজারো মানুষ ভীড় জমায় এই খামারে। দুরদুরান্ত হতে অনেক লোক ছুটে আসেন কালু বাঘাকে একটি বার দেখার জন্য । কালু বাঘাকে ছোলা,গমের ভুসি,খেসারি, ভুট্টা, ধানের কুঁড়া,গাজর,আপেল, মালটা,কলা,টমেটোসহ বিভিন্ন প্রকার খাবার খেয়ে থাকে ।
উপজেলা প্রানিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. সৈয়দ মো.নজরুল ইসলাম বলেন , এটি একটি শংকর জাতের গরু । এ জাতের গরু পালন করে সাদিয়া ডেইরি ফার্ম এর মালিক মাইনুদ্দিন এর মত অনেকেই স্বাবলম্বী হতে পারেন ।

মন্তব্য

মন্তব্য