গোলজার মোহাম্মদের ইন্দ্রনে লক্ষীপুর যুবলীগের কার্যালয় ভাংচুর। 

মোঃ জসিম উদ্দিন, চট্টগ্রাম :
লক্ষীপুর সদর উপজেলার ১২নং চরশাহী ইউনিয়ন  পূর্ব সৈয়দপুর এলাকার রফিত মরর্কেট যুবলীগের  অস্থায়ী  কার্য্যালয় ভাংচুর ঘঠনা গঠে। গত সোমবার আনুমানিক রাত ৮টা ৩০ মিনিট সময় কিছু  সন্ত্রাসী চরশাহীর রফিক  মার্কেট  যুবলীগের অস্থায়ী  কার্য্যালয় হামলা চালায়। এই সময়  কার্য্যালয় থাকা  সর্বকালেরসর্বশ্রেষ্ঠ  বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ও জননেত্রী শেখ হাসিনা চবি সহ সকল প্রকার আসবাপত্র ভাংচুর করে। ১২ নং চরশাহী ইউনিয়ন  যুবলীগের আহবায়ক  রেজাউল করিম  রিয়াজ দৈনিক দিন প্রতিদিন কে জানান  ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান  জনাব গোলজার মোহাম্মদের নির্দেশ  সন্ত্রাসীরা যুবলীগের অফিস  হামলা চালিয়ে  ভাংচুর করে।ইউনিয়ন  পরিষদের  সদস্য  রবিন, জাসদ নেতা সালাউদ্দীন  স্বপন, আব্দুল  বাবলু,সেচ্ছাসেবী লীগ নেতা বাবুল আনসারিকে ভাংচুর করতে দেখেছে স্থানীয় জনগণ। তারা গোলজার মোহাম্মদের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। তিনি আরও বলেন উপজেলার ভোটকেন্দ্র করে মুলত গোলজার মোহাম্মদের সাথে তার দূরত্ব। উপজেলাভোটের পর থেকে তাকে বিভিন্ন ধরনের হয়রানির ও হত্যার চেষ্টা করে। যুবলীগের অফিস ভাংচুর ঘটনায় তিনি মামলার  প্রস্তুতিনিচ্ছে বলেন।
অভিযোগ অস্বীকার করে  চরশাহী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব গোলজার মোহাম্মদ বলে, অফিস যুবলীগের না এটা রিয়াজের ব্যক্তিগত অফিস। সেই নিজের  অফিস নিজে ভাংচুর করে। আমার কোন লোকজন এই ঘটনায় জড়িত নয়।এই অফিসে বসে তারা বিভিন্ন  অপর্করম করে।
চন্দ্রগন্জ্ থানার পুলিশ পরিদর্শক( তদন্ত)  মোহাম্মদ মফিজ উদ্দীন বলেন ঘটনা স্থলে গিয়েছে  ভাংচুরের ঘটনা ঘটছে। অভিযোগ হলে তার প্রেক্ষিতে তদন্ত করা হবে।

মন্তব্য

মন্তব্য