ডিজিটাল নগরীতে বিশৃংখল আবাসিকের নাম শাপলা আবাসিক এলাকা ।।

 

মোঃ জসিম উদ্দীন, আকবরশাহ থানা প্রতিনিধি:
ডিজিটাল নগরী চট্টগ্রাম আকবরশাহ থানাধীন শাপলা আবাসিক এলাকা বিশৃঙ্খলা ভরাডুবীতে জনমনের মনে অসুন্তুস। বর্তমান সরকারে যে হারে সারাদেশে উন্নয়ন করছে তার ছোঁয়া লাগেনি শাপলা আবাসিক এলাকায়। এই এলাকায় লক্ষাধিক জনাগনের বসভাস, নেই যোগাযোগ সু -ব্যবস্থা, যে একটা রাস্তা আছে তার নেই কোন সংস্কার। যার কারণে শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী, চাকরিজীবি মানুষের দুর্ভোগের শেষ নেই। এই বিষয় স্থানীয় কাউন্সিলর মোঃ জহুরুল আলম জসিম এর পক্ষ থেকে মোঃ দিলদার আহম্মদ কাউছার, স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী শিল্পপতিদের জন্য রাস্তার সংস্কার করা যাচ্ছে না। রাস্তার দূরবস্থার কারণে প্রশাসনের টহলকারী গাড়ী সহজে শাপলা আবাসিক এলাকায় যায় না। যার কারণে শাপলা আবাসিক এলাকায় রাতের বেলা চুরি মাদকব্যবসা সহ অনেক অপরাধ সংগঠিত হয়। সম্প্রতি কালে শাপলা আবাসিক এলাকায় বসবাসকারী পিডিবির কর্মকর্তা মোঃ ইকবালের হোসেনের বাসায় চুরির গঠনা গঠে। এতে বর্তমানে শাপলা আবাসিক এলাকা জনগনের মনে অসন্তুস সৃষ্টি হয়েছে। শাপলা আবাসিক দোকানদারেরা অনেক রাত পর্যন্ত দোকান খুলে রাখে বলে চুরি ও মাদক ব্যবসায়ী রাতে তাদের কাজ সহজ ভাবেই চালাতে পারে বলে মনে করেন স্থানীয় জনগণ। এই বিষয়ে শাপলা আবাসিক দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোশারফ হোসেন বলেন আমাদের বাজারের ব্যবসায়িরা রাত ১২টা পর্যন্ত দোকান খোলা রাখতে পারবেন, তার পরে দোকান খোলা রাখা যাবেনা কিন্তু এক দুটি দোকান সারারাত খোলা রাখে বলে খবর পেয়েছি আমরা। আমাদের সংগঠনের নিয়ম অনুযায়ী তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিব এবং প্রশাসনের প্রতি আমাদের ব্যবসায়িক সমিতির পক্ষ থেকে অনুরোধ থাকবে যাতে তারা নিয়মিত রাতে টহলকারী পুলিশ আমাদের বাজারের একবার হলেও আসে। এটা স্থানীয় জনতার জোড় দাবী রহিল স্থানীয় প্রসাশনের প্রতি।

মন্তব্য

মন্তব্য